চুরির অপবাদে গোপালগঞ্জে ইমন মোল্লা (১৭) নামে এক কিশোরকে নির্যাতনের ঘটনায় মামলা হয়েছে। বুধবার কিশোরের মা রিনা বেগম বাদী হয়ে ছয়জনকে আসামি করে কাশিয়ানী থানায় মামলাটি করেন। পরে অভিযান চালিয়ে তিনজনকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ।

কাশিয়ানী থানার পরিদর্শক (তদন্ত) মুহাম্মদ ফিরোজ আলম বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন। গ্রেপ্তাররা হলো- মোস্তাক শেখ (৩০), টুলু শরীফ (৩০) ও নুর ইসলাম শিকদার (৫০)। বুধবার দুপুরে উপজেলার রামদিয়া এলাকা থেকে তাদেরকে গ্রেপ্তার করা হয়।

মামলার বিবরণে জানা গেছে, গত শনিবার সকালে কিশোর ইমন ব্যাটারিচালিত ভ্যান নিয়ে বাড়ি থেকে বের হয়। যাত্রী নিয়ে রামদিয়া বাজারের বটতলায় পৌঁছলে পূর্বশত্রুতার জেরে আসামিরা ইমনকে চোর বলে ধাওয়া করে। সে প্রাণ বাঁচাতে দৌড় দিলে আসামিরা ধাওয়া করে তাকে ধরে বেধড়ক মারধর করে। এ সময় বিড়ির আগুন দিয়ে তার শরীরের বিভিন্ন স্থানে ছেঁকা এবং মাথার চুল কেটে দেয় তারা।

খবর পেয়ে ইমনের বাবা-মা এসে ছেলেকে ছেড়ে দেওয়ার অনুরোধ করলে তারা অকথ্য ভাষায় গালাগালি করে। পরে আশপাশের লোকজন এগিয়ে এলে তাদেরও প্রাণনাশের হুমকি দেয়। এর ভিডিও সামাজিক মাধ্যমে ছড়িয়ে পড়ে। এ নিয়ে গণমাধ্যমে সংবাদ প্রকাশিত হলে বিষয়টি পুলিশ সুপারসহ প্রশাসনের নজরে আসে।

কাশিয়ানী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকতা (ওসি) মো. সওগাতুল আলম বলেন, গ্রেপ্তার তিন আসামিকে আদালতে পাঠানো হয়েছে। বাকিদের ধরতে অভিযান চলছে।