জামালপুরের দেওয়ানগঞ্জ পৌর নির্বাচনে পরাজিত কাউন্সিলর প্রার্থী জোতির্ময় চন্দ নাড়ুর বাড়িতে হামলা ও ভাঙচুরের ঘটনা ঘটেছে। বুধবার নির্বাচনের ফলাফল ঘোষণার পর অন্য পরাজিত কাউন্সিলর প্রার্থী খালিকুজ্জামান খোকনের সমর্থকরা দেওয়ানগঞ্জ বাজারস্থ কাউন্সিলর প্রার্থী জোতির্ময় চন্দ নাড়ুর বাড়িতে ভাঙচুর করে।

জানা যায়, বুধবার দেওয়ানগঞ্জ পৌরসভার সাধারণ নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়েছে। নির্বাচনে ৪নং ওয়ার্ড থেকে ৭ জন প্রার্থী কাউন্সিলর পদে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করেন। তার মধ্যে ডালিম প্রতীকে আব্দুস সালাম খোকা জয় লাভ করেন। নির্বাচনে ওই ওয়ার্ড থেকে জোতির্ময় চন্দ টেবিল ল্যাম্প ও খালিকুজ্জামান খোকন ব্ল্যাকবোর্ড প্রতীকে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করেন। নির্বাচনে খালিকুজ্জামান খোকন জয় লাভ করতে পারেনি।

জোতির্ময় চন্দকে তার পরাজয়ের কারণ ভেবে নির্বাচনের ফল ঘোষণার পর তার সমর্থকরা জোতির্ময় চন্দের বাড়িতে লাঠিসোঁটা ও রামদা নিয়ে হামলা ও ভাঙচুর করে। এ সময় বাড়িতে থাকা লোকজন ভয়ে আত্মগোপন করেন। হামলাকারীরা রামদা দিয়ে ঘরের জানালা ও লাঠিসোঁটা দিয়ে বাড়ির গেট ভাঙচুর করে।

জোতির্ময় চন্দ জানান, নির্বাচনে কাউন্সিলর পদে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করায় খালিকুজ্জামান খোকনের লোকজন আমার বাড়িতে হামলা ও ভাঙচুরের ঘটনা ঘটায়।

হামলা ও ভাঙচুরের ব্যাপারে প্রতিপক্ষ খালিকুজ্জামান খোকনের সঙ্গে যোগাযোগের চেষ্টা করে তাকে পাওয়া যায়নি। তার মুঠোফোনটিও বন্ধ পাওয়া যায়।

দেওয়ানগঞ্জ মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি)  মহব্বত কবীর জানান, এ ব্যাপারে কোনো অভিযোগ পাওয়া যায়নি। অভিযোগ পেলে সে অনুযায়ী ব্যবস্থা নেওয়া হবে।