হঠাৎ করে জ্বালানি তেল ডিজেলের দাম বেড়ে যাওয়ায় ঝিনাইদহের শৈলকুপায় ভরা আমন মৌসুমে জমি চাষে কৃষকের ব্যয় বেড়েছে। শনিবার সকাল থেকে প্রতিবিঘা জমি চাষে ৬শ' থেকে ৮শ' টাকা অতিরিক্ত খরচ হচ্ছে। 

আগের দিন শুক্রবারও যেখানে এক বিঘা জমি চারা রোপণের উপযোগী করতে হালচাষের জন্য ১২শ' টাকা ব্যয় করতে হয়েছিল। সেখানে শনিবার থেকে এ খরচ ১৮শ' থেকে ২৪শ' টাকায় দাঁড়িয়েছে।

আউশিয়া গ্রামের চাষি শাহিন মন্ডল জানান, শুক্রবারও তারা এক বিঘা জমি চারা রোপণের জন্য উপযোগী করতে হালচাষে ১২শ' টাকা খরচ করেছেন। শনিবার থেকে ডিজেলের দাম বৃদ্ধিতে ব্যয় বেড়ে দাঁড়িয়েছে ১৮শ' টাকা। প্রতিবিঘায় শুধুমাত্র চাষের জন্য খরচ বেড়েছে ৬শ' টাকা। এছাড়া সেচ খরচ তো আছেই।

অনন্ত বাদালশো গ্রামের চাষি গোপাল পোদ্দার জানান, ডিজেলের দাম বেড়ে যাওয়ায় তাদের প্রতিবিঘা জমিতে শুধুমাত্র জমি চাষ দিতে অতিরিক্ত খরচ হবে ৬শ' টাকা। এটা খুবই কষ্টের ব্যাপার। এতে করে অনেক জমি অনাবাদি থাকার আশঙ্কা থাকবে। 

জমি চাষের পাওয়ার টিলারের মালিক পলাশ আহমেদ জানান, শুক্রবারও তিনি ডিজেল প্রতি লিটার কিনেছেন ৮০ টাকা দরে। শনিবার সকাল থেকে তা কিনতে হচ্ছে ১১৫ টাকা লিটার। এতে করে চাষির ব্যয় বাড়ল প্রতি বিঘায় ৬শ' টাকা। আগে এক বিঘা জমি চাষ করতে তারা নিতেন ১২শ' টাকা। এখন নিতে হবে ১৮শ' থেকে ২৪শ' টাকা। 

উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা মাহফুজুর রহমান বলেন, আন্তর্জাতিক বাজারে দাম বাড়ার কারণে জ্বালানি তেলের মূল্য বেড়েছে। তবে ডিজেলের দাম বৃদ্ধিতে কৃষকের জমি চাষে অতিরিক্ত ব্যয় নিয়ে তিনি কোনো মন্তব্য করতে রাজি হননি। 

উপজেলা কৃষি অফিস সূত্রে জানা যায়, শৈলকুপায় আবাদি জমির পরিমাণ ৩২ হাজার ৭শ' হেক্টর।