কমিটিতে পদাবনতি হওয়ায় রাগে-ক্ষোভে আত্মহত্যার চেষ্টা করেছেন পটুয়াখালী পৌর আওয়ামী লীগের এক জ্যেষ্ঠ নেতা। শুক্রবার রাত ১টার দিকে আত্মহত্যার চেষ্টা করেন পৌর আওয়ামী লীগের সাবেক যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মনিরুজ্জামান চৌধুরী মনু (৫৫)। তবে বর্তমানে তিনি মোটামুটি সুস্থ আছেন বলে তাঁর পারিবার জানিয়েছে।

দলীয় সূত্রে জানা যায়, দীর্ঘ আড়াই বছর পর শুক্রবার পটুয়াখালী পৌর আওয়ামী লীগের পূর্ণাঙ্গ কমিটি ঘোষণা করা হয়। এতে মনুকে ৪ নম্বর সদস্য করা হয়। এটা মানতে পারেননি তিনি। তাই নিজের জীবন কেড়ে নেওয়ার চেষ্টা করেন। শনিবার তাঁর ভাইয়ের মেয়ে ফেসবুকে পোস্ট দিলে ঘটনাটি প্রকাশ পায়।

মনু শনিবার সমকালকে বলেন, 'আমি ও আমার অন্য ভাইয়েরা সবাই আওয়ামী লীগের রাজনীতির সঙ্গে সম্পৃক্ত। আমি দীর্ঘদিন আওয়ামী লীগের পৌর কমিটিতে ছিলাম, দু'বার দপ্তর সম্পাদক ছিলাম, শেষের দু'বার যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ছিলাম। অথচ আমাকে সদ্য ঘোষিত কমিটিতে শুধু কার্যনিবাহী কমিটির ৪ নম্বর সদস্য করা হয়। এর চেয়ে আমাকে কিছু না করলেও ভালো ছিল। এভাবে আমাকে অপমান-অপদস্ত করাটা কোনোভাবেই মেনে নিতে পারছি না।'

মনুর বড় ভাই ও সদর উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি (ভারপ্রাপ্ত) হুমায়ুন চৌধুরী বলেন, রাজনীতি করতে গিয়ে তাঁর ছোট ভাই এখন পর্যন্ত বিয়েও করেননি। সদ্য ঘোষিত কমিটির সাধারণ সম্পাদক তারিকুজ্জামান মনি বলেন, মনু আওয়ামী লীগের একজন পরীক্ষিত ও নিবেদিত কর্মী এবং দলের দুর্দিনের লড়াকু যোদ্ধা। তিনি দীর্ঘদিন ধরে সক্রিয়ভাবে দলের কাজও করছেন। রাজনীতিতে উত্থান-পতন থাকবেই। তাই বলে আত্মহত্যার চেষ্টা করে তিনি ঠিক করেননি।