দৈনিক মাতৃভূমি পত্রিকার প্রতিষ্ঠাতা সম্পাদক ও প্রকাশক অবসরপ্রাপ্ত মেজর বীর মুক্তিযোদ্ধা সুরঞ্জন দাস (৭৫) ও তার স্ত্রী সুপর্ণা দাস কানাডায় সড়ক দুর্ঘটনায় মারা গেছেন। স্থানীয় সময় শুক্রবার দিবাগত রাত ১০টার দিকে দেশটির ভ্যানকুভার শহরের একটি ক্যাডেট ক্যাম্পের কাছে এ দুর্ঘটনা ঘটে।

হবিগঞ্জের কৃতি সন্তান ও নবীগঞ্জ কীর্তি নারায়ণ কলেজের প্রতিষ্ঠাতা সুরঞ্জন দাসের বাড়ি উপজেলার গুমগুমিয়া গ্রামে। তিনি ভারতের মেঘালয়ে অবস্থিত ইকো-ওয়ান প্রশিক্ষণ ক্যাম্পে প্রশিক্ষণ নিতে সীমান্ত অতিক্রম করে ৫নং সেক্টরের অধীনে মুক্তিবাহিনীতে যোগ দেন।

পাকিস্তানি বাহিনী তার বাড়িঘরে হামলা চালিয়ে সবকিছু জ্বালিয়ে দেয় এবং তার ভাই, বৃদ্ধ খালুসহ অনেক আত্মীয়-স্বজনকে হত্যা করে।

যুদ্ধ শেষে সেনাবাহিনীতে যোগ দেন সুরঞ্জন দাস। মেজর পদে পদোন্নতি লাভের পর ১৯৮২ সালে তিনি উচ্চতর প্রশিক্ষণের জন্য যুক্তরাষ্ট্রে যান। সেখানে ১৮ মাস অবস্থান করেন। ১৯৮৪ সালে দেশে ফিরে আসেন। ১৯৮৭ সালে স্বেচ্ছায় তিনি অবসর গ্রহণ করেন।

এরপর তিনি সপরিবারে যুক্তরাষ্ট্র চলে যান। সেখানে কিছু দিন থাকার পর তিনি কানাডা চলে যান। সর্বশেষ তিনি পরিবারের সবাইকে নিয়ে কানাডাতেই স্থায়ীভাবে বসবাস করছিলেন।

তাদের মরদেহ দেশে আনার ব্যাপারে এখনও কোনো সিদ্ধান্ত হয়নি। আলোচনা চলছে। তার এক ছেলে ও এক মেয়ে কানাডায় চিকিৎসক হিসেবে কর্মরত আছেন বলে স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে।

বীর মুক্তিযোদ্ধা সুরঞ্জন দাসের মৃত্যুতে নবীগঞ্জ উপজেলা আওয়ামী লীগ, বিএনপি, জাসদ, বাসদ, গণঅধিকার পরিষদসহ বিভিন্ন রাজনৈতিক দল ও বিশিষ্টজন গভীর শোক ও দুঃখ প্রকাশ করেছেন।