জ্বালানি তেলের মূল্যবৃদ্ধির প্রতিবাদে রাজধানীর শ্যামলী এলাকায় ঝটিকা মিছিল থেকে পুলিশের গাড়ি ভাঙচুরের ঘটনায় জামায়াত-শিবিরের নেতাকর্মীদের বিরুদ্ধে মামলা হয়েছে।

শনিবার মধ্যরাতে শেরেবাংলা নগর থানায় পুলিশ বাদী হয়ে এই মামলাটি দায়ের করে। এতে ঢাকা মহানগর উত্তর জামায়াতের সেক্রেটারি মুহাম্মদ রেজাউল করিমসহ ১৫০ জনকে আসামি করা হয়েছে।

পুলিশ জানিয়েছে, গাড়ি ভাঙচুর ও নাশকতার ঘটনায় দায়ের মামলায় রেজাউল ছাড়াও আরও ১৫ জনের নাম উল্লেখ করে জামায়াত-শিবিরের অজ্ঞাতপরিচয়ে আরও ১০০ থেকে ১৫০ জনকে আসামি করা হয়েছে।

এসব আসামিদের মধ্যে রোববার ছয়জনকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। তারা সবাই শেরেবাংলা নগর থানা জামায়াতের নেতাকর্মী বলে জানিয়েছে পুলিশ।

শনিবার বেলা দেড়টার দিকে শ্যামলী এলাকায় হঠাৎ করে ঝটিকা মিছিল শুরু করে জামায়াতের নেতাকর্মীরা। মিছিলটি শিশু মেলার সামনে এসে শেষ হওয়ার সঙ্গে সঙ্গেই দলটির এক নেতা হ্যান্ডমাইকে বক্তব্য দেন। এরপরই মিছিলটি ছত্রভঙ্গ হয়ে যাওয়ার সময়ে ওই পথে যাওয়ার সময়ে পুলিশের একটি গাড়ি ঘিরে ধরে সেটি ভাঙচুর করা হয়। তখন গাড়িটি তড়িগড়ি চলে যায়।

শেরেবাংলা নগর থানার ওসি উৎপল বড়ূয়া সমকালকে বলেন, সিসিটিভি ফুটেজ ও সাক্ষ্যপ্রমাণের ভিত্তিতে নিশ্চিত হয়েছে জামায়াত-শিবিরের ঝটিকা মিছিল থেকে পুলিশের গাড়ি ভাঙচুর ও নাশকতা হয়েছে। ফুটেজ দেখে শনাক্ত করে ১৬ জনের নাম উল্লেখ করে অজ্ঞাত আরও ১৫০ ব্যক্তিকে আসামি করা হয়েছে। এদের মধ্যে ছয়জনকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। অপর আসামিদেরও চিহ্নিত করে গ্রেপ্তারের চেষ্টা চলছে।