গফরগাঁও পৌর এলাকায় তৃতীয় শ্রেণির এক শিক্ষার্থী অন্তঃসত্ত্বা হয়ে পড়েছে। ডাক্তারি পরীক্ষার জন্য তাকে ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। মেয়েটিকে ধর্ষণের অভিযোগে আজিম উদ্দিন (৫৫) নামে এক মুদি দোকানিকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ।

জানা গেছে, প্রায় ছয় মাস আগে গফরগাঁও সদরের একটি সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের ওই শিক্ষার্থী সন্ধ্যার দিকে রূপান্তর সিনেমা হলের কাছে আজিম উদ্দিনের দোকানে আইসক্রিম কিনতে যায়। তখন তাকে দোকানের পেছনে নিয়ে ধর্ষণ করে এবং ঘটনাটি কাউকে জানালে মেরে ফেলার হুমকি দেয় আজিম। পরে মেয়ের শারীরিক পরিবর্তন দেখে জিজ্ঞেস করে ঘটনা জানতে পারেন তার বাবা। পরে থানায় অভিযোগ দিলে গত শনিবার রাতে আজিমকে গ্রেপ্তার করে পুলিশ।

ধর্ষণের শিকার শিশুটির বাবা বলেন, তিন বছর আগে তার স্ত্রী মারা যান। এতিম দুই শিশু নিয়ে আজিম উদ্দিনের বাসায় ভাড়া থাকেন। মেয়ের সর্বনাশ করেছে এই আজিম। তার শাস্তি চান তিনি।

তবে অভিযোগ অস্বীকার করেছেন আজিম। তার দাবি, এটা ষড়যন্ত্র। মেয়েটির বাবা মাদকাসক্ত।

স্থানীয় কাউন্সিলর বাবুল হোসেন জানান, ঘটনা শুনেছেন তিনি। পুলিশ তদন্ত করলে সত্য ঘটনা জানা যাবে।

তৃতীয় শ্রেণির শিক্ষার্থী অন্তঃসত্ত্বা হওয়া সম্ভব কিনা- এমন প্রশ্নের জবাবে গফরগাঁও থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) ফারুক আহম্মেদ বলেন, ডাক্তারি পরীক্ষায় ছয় মাসের অন্তঃসত্ত্বার প্রমাণ মিলেছে। এ জন্য গ্রেপ্তার আজিম উদ্দিনকে রোববার জেলহাজতে পাঠানো হয়েছে।