রাজশাহীতে ট্রাফিক সার্জেন্টের ওপর ক্ষুব্ধ হয়ে নিজের মোটরসাইকেল আগুন দিয়ে পুড়িয়ে দিয়েছেন এক ব্যক্তি। সোমবার দুপুরে কোর্ট বাজারে এ ঘটনা ঘটে।

ওই ব্যক্তির বাইকের কাগজপত্র না থাকায় ট্রাফিক সার্জেন্ট মামলা দিতে গেলে তিনি নিজের মোটরসাইকেলে আগুন লাগিয়ে দেন। এর আগেও কাগজপত্র না থাকায় তাকে ট্রাফিক পুলিশ জরিমানা করেছিল বলে জানা গেছে।

মোটরসাইকেলে আগুন দেওয়া ওই ব্যক্তির নাম আশিক আলী। তিনি রাজশাহী নগরীর কাঁঠালবাড়িয়া এলাকার বাসিন্দা ও পেশায় একজন বালু ব্যবসায়ী।

স্থানীয়রা জানান, রাজশাহীর কোর্ট বাজারের অক্টোর মোড় দিয়ে যাচ্ছিলেন আশিক আলী। এসময় সেখানে কর্তব্যরত সার্জেন্ট আব্দুল কাইয়ুম তার বাইকের কাগজপত্র দেখতে চান। তার কাছে কাগজপত্র না থাকায় তিনি বাড়ি থেকে কাগজ আনার জন্য সার্জেন্টের কাছে সময় চান। কিন্তু সার্জেন্ট তাকে সময় না দিয়ে মামলার প্রস্তুতি নেন। এসময় সার্জেন্ট কাইয়ুম আরেকটি মোটরসাইকেলের কাগজ দেখতে গেলে আশিক তার বাইকে আগুন লাগিয়ে দেন।

এ বিষয়ে রাজশাহী মেট্রোপলিটন পুলিশের ট্রাফিক বিভাগের ডিসি অনির্বাণ চাকমা জানান, আশিক আলীর নামে রাজশাহীর একটি আদালতে ২০ লাখ টাকার একটি মামলা চলমান। ওই মামলায় সোমবার দুপুরে তিনি হাজিরা দিয়ে ফিরছিলেন। এসময় সার্জেন্ট নিয়ম অনুসারে বাইকের কাগজ দেখতে চান।‌ কিন্তু তার কাছে কোনো কাগজপত্র ছিল না। 

তিনি আরও বলেন, আশিকের নামে ট্রাফিক পুলিশ এর আগেও মামলা দিয়েছিল। তিনি সোমবার আদালতে অন্য একটি মামলার হাজিরা দিয়ে ফিরছিলেন। হয়তো এজন্য মানসিকভাবে কিছুটা হতাশাগ্রস্ত ছিলেন তাই এমনটি করেছে।

এর আগে গত বছরের ২৭ সেপ্টেম্বর রাজধানী ঢাকার বাড্ডা লিংক রোড এলাকায় ট্রাফিক সার্জেন্ট মামলা দেয়ার প্রস্তুতিকালে ক্ষোভে নিজের মোটরসাইকেলে আগুন দেন এক বাইকার। সে ঘটনার একটি ভিডিও সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম ফেসবুকে ছড়িয়ে পরে মুহূর্তের মধ্যে সেটি ভাইরাল হয়ে যায়।