কুয়াকাটা সংলগ্ন বঙ্গোপসাগরে ঝড়ের কবলে পড়ে ১৫ জেলেসহ এফবি নিশাত নামে মাছ ধরার একটি ট্রলার ডুবির ঘটনা ঘটেছে। এতে শরীফ, ইয়াকুব, ফরহাদ, সোহেল, ইয়াসিন, আলকাছ, আমজাদ, শরীফ উদ্দিন ও জাফর নামে নয় জেলে নিখোঁজ হয়ে গেছেন।

মঙ্গলবার রাত ১১টার দিকে পায়রাবন্দরের শেষ বয়ার ১৪ কিলোমিটার গভীরে এ দুর্ঘটনা ঘটে। নিখোঁজ জেলেরা নোয়াখালীর হাতিয়ায় ও সন্দ্বীপ এলাকার। মহিপুর মৎস্য আড়ৎ মালিক সমিতির সভাপতি ফজলু গাজী এ তথ্য জানিয়েছেন।

উদ্ধার হওয়া ওই ট্রলারের মাঝি শামিম মহিপুর উপ স্বাস্থ্যকেন্দ্রে চিকিৎসারত অবস্থায় বলেন, মঙ্গলবার রাতে বৈরী আবহাওয়ায় উত্তাল সমুদ্রে উপকূলে ফেরার পথে আমাদের ট্রলারটি উল্টে যায়। এরপর মঙ্গলবার রাতেই অন্য একটি ট্রলার আমাকেসহ চারজনকে উদ্ধার করে মহিপুরে নিয়ে আসে। বুধবার দুপুরে সুন্দরবন এলাকায় আমাদের আরও দুই জেলেকে উদ্ধার করা হয়।

পায়রাবন্দর কোস্টগার্ডের কন্টিজেন্ট কমান্ডার কামাল পিও সমকালকে বলেন, পায়রাবন্দর ও নিজামপুর কোস্টগার্ড ঝুঁকি নিয়ে নিখোঁজ জেলেদের উদ্ধার অভিযানে নেমেছে। এর আগে সোমবার রাত ৩টায় একই এলাকায় আরও দুইটি ট্রলার ডুবির ঘটনা ঘটেছে। এতে একজন জেলের সন্ধান এখনও মেলেনি। ডুবে যাওয়া তিনটি ট্রলারের খোঁজ পাওয়া যায়নি।