ফেনী জেলা যুবদলের সভাপতি জাকির হোসেন জসিমকে অস্ত্র দিয়ে ফাঁসানোর অভিযোগে তার স্ত্রী লুৎফুন নাহার ফেনী মডেল থানার ওসি ও দুই এসআইসহ ৬ জনের বিরুদ্ধে  আদালতে অভিযোগ দাখিল করেছেন। বিচারক আগামী ৩০ দিনের মধ্যে তদন্ত প্রতিবেদন জমা দিতে পিবিআইকে নির্দেশ দিয়েছেন।

মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা নিজাম উদ্দিনসহ এসআই এমরান হোসেন, নারায়ণ চন্দ্র দাস, ডিএসবি কর্মকর্তা হাবিবুর রহমান ও মো সৈকত, সাব্বির হোসেন নামে দুই সাক্ষীর বিরুদ্ধে অভিযোগ জমা দিয়েছেন অভিযোগকারী।

বুধবার দুপুরে ফেনীর জুডিশিয়াল আদালতের জ্যেষ্ঠ বিচারিক হাকিম মুহাম্মদ আশেকুর রহমানের কাছে অভিযোগ দায়ের করেন তিনি। আবেদনে এই ঘটনার বিচার বিভাগীয় তদন্তের দাবি করা হয়েছে।

আদালতের বেঞ্চ সহকারী শাহ নুর আলম জানান, বিকালে আদালতের এক শুনানিতে আগামী ৩০ দিনের মধ্যে অভিযোগের তদন্ত প্রতিবেদন জমা দিতে পিবিআইকে নির্দেশ দিয়েছেন। এতে ১৫ দিনের মধ্যে মামলার অগ্রগতি জানাতে বলা হয়েছে। ওসির তদূর্ধ্ব কোনো অফিসারকে এ মামলা তদন্ত করতে বলা হয়েছে। আগামী ১১ সেপ্টেম্বর পরবর্তী শুনানির দিন ধার্য করা হয়। 

মামলার বিবরণে বলা হয়, ফেনী জেলা যুবদলের সভাপতি জাকির হোসেন জসিমকে (৪৮) ২১ জুলাই রাতে ঢাকার পল্টনের বিজয়নগর এলাকা থেকে ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশের সহায়তায় গ্রেপ্তার করা হয়। এরপর জাকির হোসেন জসিমকে ঢাকা থেকে ফেনী আনা হয়। ওইদিন রাতে তার বাসায় তল্লাশি চালিয়ে অস্ত্র উদ্ধারের কথা কথা জানায় পুলিশ। এ ঘটনায় ফেনী মডেল থানা পুলিশ বাদী হয়ে অস্ত্র মামলা দায়ের করে। 

তবে অস্ত্র উদ্ধারের অভিযোগটি শুরু থেকে অস্বীকার করে আসছে জাকির হোসেন জসিমের পরিবার। তাকে অস্ত্র দিয়ে ফাঁসানো হয়েছে বলে সংবাদ সম্মেলন করে দাবি করে  জেলা বিএনপি।