টেকনাফের প্রবালদ্বীপ সেন্টমার্টিন সংলগ্ন সাগরে কোস্টগার্ড ও মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদপ্তর ১ লাখ ৭০ হাজার পিস ইয়াবার চালানবোঝাই ইঞ্জিন চালিত ট্রলারসহ মিয়ানমারের ৬ নাগরিককে আটক করেছে।

আটক ব্যক্তিরা হলেন- মিয়ানমারের আকিয়াব জেলার ঘাটিয়াখালী থানার নাপং মাস্টার দিল মোহাম্মদ মাঝি এলাকার মৃত নুর আহমদের ছেলে কেফায়েত উল্লাহ (২২), ক্যাম্প পাড়ার তোবারক মাঝি এলাকার মৃত আব্দুল গাফ্ফারের ছেলে মো. শরিফ (২৭), মোহাম্মদ হোছন মাঝি এলাকার মিজ্জি-২ এর বাসিন্দা জালাল উদ্দিনের ছেলে মো. হোছন (৩৮), ক্যাম্পপাড়া তোবারক মাঝি এলাকার মৃত হারেদের ছেলে ছৈয়দুর রহমান (৪৩), আলছান মাঝি এলাকার মৃত রশিদ আহমদের ছেলে মো. হোছন (২৭) এবং ক্যাম্পপাড়া তবারক হোছন মাঝি এলাকার নুর কবিরের ছেলে নুর হোসেন (২১)।

মঙ্গলবার বিকেল ৪টায় বাংলাদেশ কোস্টগার্ড টেকনাফ বিসিজি স্টেশন কার্যালয়ে আয়োজিত যৌথ সংবাদ সম্মেলনে বিষয়টি নিশ্চিত করেন বিসিজি স্টেশন টেকনাফ কোস্টগার্ডের লে. কমান্ডার আশিক আহমেদ। 

তিনি জানান, ভোরে প্রবালদ্বীপ সেন্টমার্টিন ছেঁড়াদ্বীপে মিয়ানমার থেকে আসা একটি ইঞ্জিন চালিত কাঠের ট্রলার দেখে থামানোর সংকেত দেওয়া হয়। এতে ট্রলারে থাকা লোকজন দেশীয় অস্ত্রসস্ত্র দিয়ে আক্রমণের চেষ্টা করে। এ সময় কোস্টগার্ড সদস্যরা ৪ রাউন্ড ফাঁকা গুলিবর্ষণ করে তাদের থামিয়ে ট্রলার তল্লাশি করে একটি বস্তা থেকে ১ লাখ ৭০ হাজার পিস ইয়াবা ও একটি সিমকার্ড বিহীন স্মার্টফোন (ভাঙ্গা) জব্দ করে। 

তিনি আরও জানান, জব্দকৃত ইয়াবা ও ট্রলারসহ আটক ব্যক্তিদের বিরুদ্ধে সংশ্লিষ্ট ধারায় মামলা দায়েরের পর টেকনাফ মডেল থানায় হস্তান্তর করা হবে।