খাগড়াছড়িতে এক প্রধান শিক্ষককে মারধরের  অভিযোগ উঠেছে সদর উপজেলা সহকারী শিক্ষা অফিসার সুপায়ন খীসার বিরুদ্ধে। ঘটনার পর আহত শিক্ষক মৌসুমী ত্রিপুরাকে (৪৪) খাগড়াছড়ি সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

মঙ্গলবার দুপুর ১২টার দিকে উপজেলা সহকারী শিক্ষা অফিসারের কার্যালয়ে এই ঘটনা ঘটে। মৌসুমী ত্রিপুরা খাগড়াছড়ি সদরের মহালছড়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক।

হাসপাতালে চিকিৎসাধীন মৌসুমী ত্রিপুরা জানান, সকালে বিদ্যালয়ের ভাঙ্গা ফটক মেরামতের আবেদন নিয়ে গেলে সহকারী শিক্ষা অফিসার সুপায়ন খীসা তাকে মারধর করেন। সুপায়ন খীসার সঙ্গে তার বিয়ে হয়েছে বলেও দাবি করেন তিনি।

এদিকে এসব অভিযোগ অস্বীকার করে সুপায়ন খীসা বলেছেন, কথা কাটাকাটির এক পর্যায়ে ধাক্কায় পড়ে গিয়ে দরজার সঙ্গে আঘাত পেয়েছেন প্রধান শিক্ষক। বিয়ের খবরটি ভিত্তিহীন বলে উড়িয়ে দেন তিনি।

এই বিষয়ে খাগড়াছড়ি জেলা প্রাথমিক শিক্ষা অফিসার ফাতেমা মেহের ইয়াসমিন বলেন, এই ঘটনায় যিনিই জড়িত থাকবেন; তার বিরুদ্ধে বিভাগীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।