খুলনা বিশ্ববিদ্যালয়ের (খুবি) অপরাজিতা হলের ভেতরে এক ছাত্রী আত্মহত্যার চেষ্টা চালিয়েছেন। মঙ্গলবার বেলা সাড়ে ১১টার দিকে অপরাজিতা হলের বাথরুমে গিয়ে গলা কেটে আত্মহত্যার চেষ্টা চালান আইন ডিসিপ্লিনের চতুর্থ বর্ষের ছাত্রী খাদিজা আক্তার।

বিশ্ববিদ্যালয়ের হলে থাকা অন্য সহপাঠীরা তাকে উদ্ধার করে খুলনা মেডিকেল কলেজ (খুমেক) হাসপাতালে ভর্তি করেছেন। তিনি এখন আশঙ্কামুক্ত।

হলের সহপাঠীরা জানান, পারিবারিক কিছু বিষয় নিয়ে কয়েকদিন ধরে ওই শিক্ষার্থী মানসিক যন্ত্রণায় ছিলেন। বেলা সাড়ে ১১টার দিকে হঠাৎ বটি নিয়ে বাথরুমে প্রবেশ করে দরজা আটকে দেন। পরে ওই বটি দিয়ে গলায় আঘাত করেন তিনি। ছাত্রীরা বিষয়টি টের পেয়ে তাকে উদ্ধার করে খুলনা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে যাই।

খুলনা বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্রবিষয়ক পরিচালক অধ্যাপক শরীফ হাসান লিমন জানান, দুপুরেই তার অস্ত্রোপচার সম্পন্ন হয়েছে। তাকে পোস্ট অপারেটিভ কেয়ার ইউনিটে স্থানান্তর করা হয়েছে।