সাতক্ষীরার পাটকেলঘাটায় ছাত্রলীগের এক নেতাকে কুপিয়ে আহত করেছে দুর্বৃত্তরা। বৃহস্পতিবার রাত ১০টার দিকে উপজেলার যুগীপুকুরিয়া গ্রামের সখিনা মোড়ে এ হামলা হয়। আহত রায়হান হুসাইন ইকরামুল তালা উপজেলার সরুলিয়া ইউনিয়ন ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক। এদিকে রাতে ওই ঘটনার পর শুক্রবার সকালে তাঁর চাচাতো ভাই কামরুলকে কুপিয়ে আহত করেছে দুর্বৃত্তরা। তাঁদের দু'জনকেই সাতক্ষীরা সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

ইকরামুলের ভাই পলাশ সানা অভিযোগ করেন, সবশেষ ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে তাঁদের চাচাতো ভাই নাজিম উদ্দিন সদস্য নির্বাচিত হন। এ নিয়ে প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থী আব্দুল্লাহ সরদারের সঙ্গে তাঁদের বিরোধ চলছিল। এর জেরেই হামলা হয়েছে।

তিনি জানান, বৃহস্পতিবার সন্ধ্যা সাড়ে ৭টার দিকে যুগীপুকুরিয়া গ্রামের নিজবাড়িতে স্ট্রোক করেন তাঁদের মা। খবর পেয়ে চিকিৎসক আনতে পার্শ্ববর্তী ছকিনা মোড়ে যান ভাই ইকরামুল। ওই সময় তাঁর ওপর হামলা চালায় স্থানীয় আব্দুল্লাহ সরদার, বিএনপি নেতা আমান, ওলিয়ার সরদার ও আলিম সরদার।

স্থানীয়রা জানান, ইউপি সদস্য নাজিম উদ্দিনের ছোট ভাই কামরুলের ওপর হামলা হয় শুক্রবার সকালে। পাটকেলঘাটা বাজার থেকে যুগীপুকুরিয়া গ্রামে বাড়ির রাস্তায় ঢোকার পরপরই আব্দুল্লাহ সরদারের নেতৃত্বে হামলা চালানো হয়।

সাতক্ষীরা সদর হাসপাতালের চিকিৎসক জানান, ইকরামুলের মাথা, হাত ও পায়ে ধারালো অস্ত্রের জখম রয়েছে। তাঁর অবস্থা আশঙ্কাজনক। আর কামরুলের দুই পায়ে আটটি সেলাই দিতে হয়েছে।

পাটকেলঘাটা থানার ওসি কাঞ্চন কুমার রায় জানান, এ ঘটনায় দুটি মামলা হয়েছে। তদন্ত চলছে। দোষীদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।