পঞ্চগড়ে অবৈধভাবে বিক্রি ও পরিবহনের সময় ২১২ বস্তা চাসহ একটি পিকআপ ভ্যান জব্দ করেছেন ভ্রাম্যমাণ আদালত। এ সময় সওদাগর এক্সপ্রেস নামে কুরিয়ার সার্ভিসের গুদামও সাময়িক সিলগালা করা হয়। সোমবার (২২ আগস্ট) রাতে জেলা শহরের মিঠাপুকুর এলাকায় সওদাগর এক্সপ্রেস কুরিয়ার সার্ভিসে এই অভিযান চালানো হয়।

ভ্রাম্যমাণ আদালত সূত্রে জানা গেছে, পঞ্চগড় থেকে অবৈধভাবে দেশের বিভিন্ন জেলায় কুরিয়ার সার্ভিসের মাধ্যমে চা পাঠানো হচ্ছে। গোপন তথ্যসূত্রের ভিত্তিতে এমন খবর পেয়ে সদর উপজেলা নির্বাহী অফিসার (ইউএনও) মো. মাসুদুল হক এই ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনা করেন।

এ সময় চা পরিবহনকারী পিকআপসহ সওদাগর এক্সপ্রেস কুরিয়ার সার্ভিসের একটি গুদামে রাখা ২১২ বস্তা চা উদ্ধার করা হয়। কুরিয়ার প্রতিষ্ঠানের পক্ষ থেকে চা পাঠানোর বৈধ কাগজপত্র দেখাতে না পারায় চায়ের বস্তাগুলো জব্দ করা হয়।

একই সময় কুরিয়ার সার্ভিসের গুদাম ঘরটিও সাময়িক সিলগালা করা হয়। এ সময় বাংলাদেশ চা বোর্ড পঞ্চগড় আঞ্চলিক কার্যালয়ের প্রধান বৈজ্ঞানিক কর্মকর্তা শামীম আল মামুন, পঞ্চগড় কাস্টম সুপার আবু সরোয়ারসহ সদর থানা পুলিশের দল উপস্থিত ছিলেন।

সদর উপজেলা নির্বাহী অফিসার মাসুদুল হক বলেন, গোপন সংবাদের ভিত্তিতে এই অভিযান চালানো হয়। এ সময় প্রতি বস্তা ৫০ কেজি ওজনের ২১২ বস্তা চাসহ একটি পিকআপ জব্দ করা হয়। চা বিক্রি বা পরিবহনের যথাযথ কাগজপত্র দেখাতে না পারায় জব্দকৃত চা কাস্টমসের কাছে হস্তান্তর করে গুদাম ঘরটি সাময়িক সিলগালা করা হয়।