গাজীপুর সিটি করপোরেশনের বরখাস্ত মেয়র জাহাঙ্গীর আলমের বিরুদ্ধে দুর্নীতি ও অনিয়মের অভিযোগ তদন্ত শুরু করেছে দুর্নীতি দমন কমিশন (দুদক)। তাঁর সময়ে বিভিন্ন উন্নয়ন প্রকল্পে বরাদ্দ ৭ হাজার ৮০০ কোটি টাকা এবং রাজস্ব খাতের টাকায় গৃহীত উন্নয়নকাজ বাস্তবায়নে কী কী অনিয়ম ও দুর্নীতি হয়েছে, তার তদন্ত করবে সংস্থাটি। গতকাল রোববার তদন্ত দলের প্রধান দুদকের উপপরিচালক আলী আকবর ও সদস্য সহকারী পরিচালক আশিকুর রহমান গাজীপুর নগর ভবন পরিদর্শনে যান।

এ সময় কমিটির সদস্যরা সিটি করপোরেশনের দায়িত্বশীল কর্মকর্তাদের জিজ্ঞাসাবাদ করেন। পরে সেখান থেকে প্রয়োজনীয় নথি সংগ্রহ করে নিয়ে যান।
দুদকের সহকারী পরিচালক আশিকুর রহমান বলেন, 'প্রথমে আমরা ২৬ পাতার অভিযোগ নিয়ে কাজ শুরু করেছিলাম। পরে অভিযোগের সংখ্যা বেড়েছে। আমাদের হাতে কয়েকশ পৃষ্ঠার অভিযোগ জমা পড়েছে।' প্রতিটি অভিযোগ অনুসন্ধানের পর প্রমাণ পাওয়া গেলে দুদক আইন অনুযায়ী মামলা করা হবে বলেও জানান।

আশিকুর রহমান বলেন, 'মেয়র হিসেবে জাহাঙ্গীর আলম দায়িত্ব নেওয়ার পর থেকে সিটি করপোরেশনের উন্নয়নে বরাদ্দ করা ৭ হাজার ৮০০ কোটি টাকার উন্নয়নকাজ বাস্তবায়নে কোথায় কী অনিয়ম হয়েছে, সেগুলো তদন্ত করছি।' এ ছাড়া রাজস্ব খাতে আদায় হওয়া টাকার বিষয়েও অনুসন্ধান চলছে বলে জানান।
তিনি আরও বলেন, 'আমরা সিটি করপোরেশনের বিভিন্ন ব্যাংকের বৈধ ব্যাংক হিসাব-সংক্রান্ত তথ্য সংগ্রহ করেছি। গাজীপুরের কোনাবাড়ীতে একটি বেসরকারি ব্যাংকে সিটি করপোরেশনের নামে জাহাঙ্গীর আলমের একক সইয়ে অ্যাকাউন্ট খুলে আড়াই কোটি টাকা দুর্নীতির তথ্য পাওয়া গেছে।'
সরেজমিন যাচাই করার জন্য ওই শাখায় অনুসন্ধান করা হবে বলেও জানান তিনি।