আওয়ামী লীগের সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য ও জাতীয় সংসদের উপনেতা বর্ষীয়ান রাজনীতিবিদ সৈয়দা সাজেদা চৌধুরীকে রাজধানীর বনানী কবরস্থানে দাফন করা হবে। সোমবার বাদ আছর তাকে দাফন করা হবে।

সাজেদা চৌধুরীর ব্যক্তিগত কর্মকর্তা বেনজীর আহমেদ রায়হান এসব তথ্য জানান।

বেনজীর আহমেদ রায়হান জানিয়েছিলেন, সকাল ১১টায় সংসদ ভবনের দক্ষিণ প্লাজায় সাজেদা চৌধুরীর প্রথম জানাজা অনুষ্ঠিত হবে।

তবে সাজেদা চৌধুরীর এপিএস শফি উদ্দিন সোমবার সকালে জানান, বৃষ্টির কারণে জাতীয় সংসদের দক্ষিণ প্লাজায় জানাজা ও শ্রদ্ধা নিবেদনের আয়োজন হবে না।

তিনি বলেন, প্রথম জানাজা ফরিদপুরে নগরকান্দায় এম এন একাডেমী স্কুল মাঠে সোমবার বেলা ১১টায় অনুষ্ঠিত হবে। ‌ বিকেল তিনটায় ঢাকার কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে সর্বসাধারণের শ্রদ্ধা নিবেদনের মরদেহ রাখা হবে। বাদ আসর বায়তুল মোকাররম জাতীয় মসজিদে মরহুমের নামাজে জানাজা অনুষ্ঠিত হবে। পরবর্তীতে বনানী কবরস্থানে রাষ্ট্রীয় মর্যাদায় দাফন করা হবে। 

রোববার রাত ১১টা ৪০ মিনিটে ঢাকার সম্মিলিত সামরিক হাসপাতালে (সিএমএইচ) চিকিৎসাধীন অবস্থায় সাজেদা চৌধুরী মারা যান। তার বয়স হয়েছিল ৮৭ বছর। আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় দপ্তর সম্পাদক বিপ্লব বড়ুয়া সমকালকে এ তথ্য নিশ্চিত করেন।

সাজেদা চৌধুরীর মৃত্যুতে রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদ এবং প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা গভীর শোক ও সমবেদনা জানিয়েছেন।

গুরুতর অসুস্থ অবস্থায় সম্প্রতি সাজেদা চৌধুরীকে সম্মিলিত সামরিক হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। সেখানে তাকে নিবিড় পরিচর্যা কেন্দ্রে (আইসিসিইউ) রাখা হয়েছিল।

আওয়ামী লীগের সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য সাজেদা চৌধুরী ফরিদপুর-২ আসনের সংসদ সদস্য। বর্ষীয়ান এই রাজনীতিবিদের অসুস্থতার কারণে সম্প্রতি তার নির্বাচনী এলাকা ফরিদপুরের নগরকান্দা উপজেলা আওয়ামী লীগের ত্রিবার্ষিক সম্মেলন স্থগিত করা হয়েছে। দীর্ঘ প্রায় ৯ বছর পর সোমবার এই সম্মেলন অনুষ্ঠিত হওয়ার কথা ছিল। তার আগেই রোববার মধ্যরাতে চলে গেলেন তিনি।