জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের (জাবি) ১৯তম উপাচার্য হিসেবে দায়িত্ব পেয়েছেন পদার্থবিজ্ঞান বিভাগের অবসরপ্রাপ্ত অধ্যাপক নূরুল আলম। 

আজ মঙ্গলবার আচার্য রাষ্ট্রপতি মো. আব্দুল হামিদের নির্দেশক্রমে শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের বিশ্ববিদ্যালয় শাখার উপ-সচিব মাহমুদুল আলম স্বাক্ষরিত এক প্রজ্ঞাপনে এ তথ্য জানা যায়।

এতে বলা হয়, ভাইস চ্যান্সেলর হিসেবে তাঁর নিয়োগের মেয়াদ যোগদানের তারিখ হতে চার বছর হবে। ওই পদে তিনি বর্তমান পদের সমপরিমাণ বেতনভাতাদি পাবেন। এছাড়া তিনি বিধি অনুযায়ী পদ সংশ্লিষ্ট অন্যান্য সুবিধা পাবেন। তিনি বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা হিসেবে সার্বক্ষণিক বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাসে অবস্থান করবেন। রাষ্ট্রপতি প্রয়োজনে যেকোনো সময় এ নিয়োগ বাতিল করতে পারবেন। 

এ ব্যাপারে নব নিযুক্ত উপাচার্য অধ্যাপক ড. মো. নূরুল আলম বলেন, আমাকে জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য মনোনীত করার সংশ্লিষ্টের প্রতি ধন্যবাদ ও কৃতজ্ঞতা জানাই। অতীতে যেমন শিক্ষার্থী, সহকর্মী, কর্মকর্তা-কর্মচারীর সহযোগিতা পেয়েছি ভবিষ্যতেও এ ধারা কামনা করছি। সবাইকে সঙ্গে নিয়ে বিশ্ববিদ্যালয়ের কল্যাণে কাজ করতে চাই। সকলের প্রচেষ্টায় এ বিশ্ববিদ্যালয় বিশ্বমানের হয়ে উঠবে। 

এর আগে গত ১২ আগস্ট উপাচার্য প্যানেল নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়। এতে মোট আটজন শিক্ষক উপাচার্য পদে নির্বাচন করেন। তার মধ্যে অধ্যাপক ড. মো. নূরুল আলম ৪৬ ভোট পেয়ে দ্বিতীয় স্থান অধিকার করেন। এছাড়া অর্থনীতি বিভাগের অধ্যাপক আমির হোসেন ৪৮ ভোট পেয়ে প্রথম হন এবং পরিসংখ্যান বিভাগের অধ্যাপক অজিত কুমার মজুমদার ৩২ ভোট পেয়ে তৃতীয় স্থান অধিকার করেন। নির্বাচনে সর্বোচ্চ ভোট পাওয়া এ তিনজনের নাম বিশ্ববিদ্যালয়ের আচার্য রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদের কাছে পাঠানো হয়। নির্বাচিত তালিকা থেকে অধ্যাপক নূরুল আলমকে উপাচার্য মনোনীত করেন রাষ্ট্রপতি। 

উল্লেখ্য, অধ্যাপক ড. মো. নূরুল আলম ১৯৮২ সালে জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ে পদার্থবিজ্ঞান বিভাগে প্রভাষক হিসেবে শিক্ষকতা শুরু করেন। কর্মজীবনে অধ্যাপনার পাশাপাশি তিনি বিশ্ববিদ্যালয়ের সিনেট, সিন্ডিকেট, একাডেমিক কাউন্সিলসহ বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ দায়িত্ব পালন করেছেন। 

এছাড়া তিনি জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষক সমিতির সহ-সভাপতি ও সভাপতি এবং বাংলাদেশ বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষক সমিতি ফেডারেশনের সহ-সভাপতি ও সভাপতি হিসেবেও নেতৃত্ব দিয়েছেন।