তরুণীর স্বর্ণের চেইন ছিনতাই করে পালিয়ে যাচ্ছিলেন এক যুবক। লোকজন তাকে ধাওয়া করে। এরমধ্যে এক বৃদ্ধ ভিক্ষুক ছিনতাইকারীর পথরোধ করে দাঁড়ান। তাকে লাঠি দিয়ে আঘাত করে মাটিতে ফেলে দেওয়ার পরও জাপটে ধরেন। তখনই উপস্থিত লোকজন ছিনতাইকারী ধরতে সক্ষম হয়।

মঙ্গলবার সন্ধ্যায় রাজধানীর উত্তরায় এ ঘটনা ঘটে। লোকজন ছিনতাইকারীকে আটক করে পুলিশে সোপর্দ করেছে।

উত্তরা পশ্চিম থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোহাম্মদ মহসীন সমকালকে বলেন, ভুক্তভোগী আঁখি মণি সিভা উত্তরায় একটি বেসরকারি প্রতিষ্ঠানে চাকরি করেন। মঙ্গলবার সন্ধ্যায় তিনি অফিস শেষে বাড়ি ফিরছিলেন। পথে উত্তরা-৩ নম্বর সেক্টরের কুশল সেন্টারের সামনে তার গলায় থাকা চেইন ছিনিয়ে দৌড় দেন সবুজ নামে এক যুবক।

সিভা চিৎকার করলে আশপাশের লোকজন তার পিছু ধাওয়া করে। এ সময় সেখানে ভিক্ষা করছিলেন ষাটোর্ধ্ব বাবর মিয়া। সবুজকে পালাতে দেখে তিনি আটক করেন। এদিকে পুলিশের ভয়ে সবুজ সেই চেইন গিলে ফেলেন। পরে তাকে বমি করিয়ে চেইন উদ্ধার করা হয়। এ ঘটনায় মামলা হয়েছে।

ওসি জানান, ছিনতাইকারী সবুজ পিরোজপুরের ভাণ্ডারিয়া উপজেলার সিদ্দিকুর রহমানের ছেলে। আর ভিক্ষুক বাবর মিয়ার বাড়ি ব্রাহ্মণবাড়ীয়ার নবীনরগর উপজেলায়।