কিশোরগঞ্জের ভৈরবে পারিবারিক বিরোধের জের ধরে ভাইয়ের হাতে জনি মোল্লা (৪০) নামে এক ব্যক্তি নিহত হয়েছেন। বুধবার রাত ১২টার দিকে পৌর এলাকার চন্ডিবের মোল্লা বাড়িতে এই ঘটনা ঘটে।

নিহত জনি মোল্লা (৪০) তুলাকান্দি সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষক। এ ঘটনায় পুলিশ চারজনকে আটক করেছে। আটকরা হলেন- বাপ্পি মোল্লা, রাব্বি মোল্লা, সাকি মোল্লা, শিউলি বেগম।

নিহতের পারিবার ও পুলিশ সূত্রে জানা যায়, জনি মোল্লার চাচাতো ভাই বাপ্পি মোল্লার সাথে এক প্রবাসীর স্ত্রীর দীর্ঘদিন ধরে প্রেম চলছিল। দুই মাস আগে ওই নারী বিয়ের জন্য চাপ দেয় বাপ্পি মোল্লাকে। কিন্তু ওই নারী তিন সন্তানের মা হওয়ায় জনি মোল্লাসহ পরিবারের লোকজন বিয়েতে বাধা দেয়। তারপরও গত সোমবার ওই নারীকে বিয়ে করেন বাপ্পি মোল্লা। এ নিয়ে বুধবার রাতে বাপ্পি মোল্লা ও জনি মোল্লার মধ্যে কথা কাটাকাটি হয়। এক পর্যায়ে বাপ্পি মোল্লার আঘাতে জনি মোল্লা মাটিতে লুটিয়ে পড়েন। আহত অবস্থায় জনিকে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন। নিহতের লাশ ময়না তদন্তের জন্য কিশোরগঞ্জ পাঠানো হয়েছে।

ভৈরব থানার ওসি (অপারেশন) কাইসার আহমেদ জানান,পারিবোরিক বিরোদের জের ধরে এ ঘটনা ঘটেছে। এ ব্যাপারে মামলার প্রস্তুতি চলছে। মামলা হলে আইনানুগ ব্যবস্থা নেওয়া হবে।