বগুড়ার শেরপুর উপজেলার ঢাকা-বগুড়া মহাসড়কের ছনকা বাজার এলাকায় শুক্রবার দিবাগত মধ্যরাতে যাত্রীবাহী চলন্ত বাসে আগুন লাগার ঘটনা ঘটেছে। এঘটনায় অল্পের জন্য প্রাণে রক্ষা পেয়েছেন অন্তত ৪৫ জন যাত্রী।

শেরপুর ফায়ার সার্ভিস এন্ড সিভিল ডিফেন্সের ইন্সপেক্টর হোসেন এই তথ্য নিশ্চিত করে জানান, কুড়িগ্রাম থেকে ছেড়ে যাওয়া আহসান পরিবহনের একটি বাস ৪৫ জন যাত্রী নিয়ে ঢাকায় যাচ্ছিল। পথিমধ্যে মহাসড়কের ছনকা বাজার নামক স্থানে পৌঁছালে বাসটিতে হঠাৎ আগুন লাগে। এসময় বাসের যাত্রীরা দ্রুত নেমে নিরাপদে চলে যান। ফলে কেউ হতাহত হয়নি। এরপর যাত্রীদের চিৎকারে স্থানীয়রা এসে ফায়ার সার্ভিস অফিসে খবর দেন। পরে আমরা তাৎক্ষণিক ঘটনাস্থলে এসে দশ মিনিটের মধ্যেই আগুন নিয়ন্ত্রণে আনতে সক্ষম হই।

ফায়ার সার্ভিসের ওই কর্মকর্তার দাবি, আমরা ঘটনাস্থলে আসার আগে বাসে থাকা যাত্রীদের মালামাল ও বাসের সিংহভাগ পুড়ে ছাই হয়ে যায়। যান্ত্রিক ক্রটির কারণে আগুন লাগতে পারে বলে প্রাথমিকভাবে ধারণা করা হচ্ছে।

স্থানীয় ছনকা বাজার এলাকার বাসিন্দা ওবায়দুর রহমান বলেন, রাত দুইটার দিকে হঠাৎ মহাসড়ক থেকে আগুন আগুন শব্দ ভেসে আসে। বাড়ি থেকে বের হয়ে দেখি একটি চলন্ত বাস আগুনে পুড়ছে। আর যাত্রীরা বাস থেকে নেমে নিরাপদে অবস্থান নিয়ে চিৎকার করছেন। পরে ফায়ার সার্ভিস অফিসে খবর দেই। তারা ঘটনাস্থলে এসে আগুন নেভান।

শেরপুর হাইওয়ে পুলিশের গাড়িদহ ক্যাম্পের ইনচার্জ বানিউল আনাম জানান, চলন্ত বাসে আগুন লাগার খবর পেয়ে তারাও দ্রুত ঘটনাস্থলে যান। সেইসঙ্গে উদ্ধার কার্যক্রম পরিচালনা করেন।