পরিকল্পনামন্ত্রী এম এ মান্নান বলেছেন, আমাদের বিশাল বিশাল অর্জন আছে। আমরা দারিদ্র্য কমিয়ে এনেছি। অনেক কিছু করেছি, এরপরও অসাম্য আছে, বৈষম্য আছে, অবিচার আছে। আইনসিদ্ধভাবেই অন্যায় এ দেশে আছে। এগুলো দারিদ্র্যের পক্ষে কাজ করে। দারিদ্র্য দীর্ঘদিন টিকে থাকার বিষয়টি এগুলো সমর্থন করে।

শনিবার শাহ্জালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ে (শাবি) ‘৫০ বছরে বাংলাদেশের অর্জন-প্রত্যাশা এবং চ্যালেঞ্জ' শীর্ষক দুই দিনব্যাপী আন্তর্জাতিক সম্মেলনের সমাপনী অনুষ্ঠানে তিনি এসব কথা বলেন।

আইনসিদ্ধ বৈষম্যের উদাহরণ দিয়ে পরিকল্পনামন্ত্রী বলেন, গ্রামে ছোটখাটো বিল আছে, সেখানে মাছ থাকে। আবহমানকাল ধরে গ্রামের মানুষ এই মাছ ধরে খান। তবে এসব বিল এখন আইন করে ইজারা দেওয়া হচ্ছে। আর ইজারা নিচ্ছেন আমাদের মতো মানুষ, যাঁর অর্থ আছে। ওই যে বললাম- বিধিবদ্ধভাবে এবং আইনিভাবে অন্যায় স্থাপিত। এভাবে দরিদ্র লোকজনকে প্রাকৃতিক প্রোটিন থেকে বঞ্চিত করা হচ্ছে।

তিনি আরও বলেন, আমরা ১০-১৫ বছর বিভ্রান্তির পর একটা ট্র্যাকে আসছি বলে মনে করি। এই মুহূর্তে দরকার গুছিয়ে চলা।

শাবি উপাচার্য অধ্যাপক ফরিদ উদ্দিন আহমেদের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি ছিলেন সিলেটের নর্থ ইস্ট বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক ড. ইলিয়াস উদ্দিন বিশ্বাস। সংক্ষেপে বিষয়বস্তু তুলে ধরেন সম্মেলনের সদস্য সচিব অধ্যাপক ড. জায়েদা শারমিন। 

আন্তর্জাতিক এ সম্মেলনে যুক্তরাষ্ট্র, ভারত, শ্রীলঙ্কা, ডেনমার্কসহ আটটি দেশের ৯৭টি গবেষণা প্রবন্ধ উপস্থাপন করা হয়। দেশ-বিদেশের সাত শতাধিক শিক্ষক, শিক্ষার্থী ও গবেষক এতে অংশ নেন।