রাজশাহীতে পেশাগত দায়িত্ব পালনকালে এটিএন নিউজের প্রতিনিধি বুলবুল হাবিব ও ক্যামেরাপারসন রুবেল ইসলামের ওপর হামলাকারীদের অবিলম্বে গ্রেপ্তার করতে আলটিমেটাম দিয়েছেন সাংবাদিকরা। 

রোববার নগরীর সাহেববাজার জিরো পয়েন্টে অনুষ্ঠিত মানববন্ধনে ৪৮ ঘণ্টার আলটিমেটাম দেওয়া হয়। রাজশাহী টেলিভিশন জার্নালিস্ট অ্যাসোসিয়েশন এ কর্মসূচির আয়োজন করে।

গত ৫ সেপ্টেম্বর রাজশাহী বরেন্দ্র বহুমুখী উন্নয়ন কর্তৃপক্ষ (বিএমডিএ) কার্যালয়ের কর্মকর্তা-কর্মচারীরা সরকার নির্ধারিত সময়ের মধ্যে অফিসে আসেন না- এমন সংবাদ সরাসরি টিভিতে প্রচার করছিলেন সাংবাদিক বুলবুল হাবিব। সরাসরি সংবাদ প্রচারের সময় বিএমডিএর নির্বাহী পরিচালক আব্দুর রশীদের নির্দেশে কর্মকর্তা-কর্মচারীরা তাদের ওপর হামলা চালান। এতে ক্যামেরাপারসন রুবেল ইসলামের কানের পর্দা ফেটে যায়।

মানববন্ধনে দৈনিক সোনার দেশের সম্পাদক আকবারুল হাসান মিল্লাত বলেন, দুই সংবাদকর্মীর ওপর হামলার এত দিন পার হলেও এখনও কেউ গ্রেপ্তার না হওয়া রহস্যজনক। এটি দুঃখজনকও। তবে স্বস্তির খবর হলো আসামিরা উচ্চ আদালতে জামিনের জন্য আবেদন করলেও আদালত তা গ্রহণ করেননি। হয়তো তারা অন্য বেঞ্চে জামিন আবেদন করবেন। আমরা আদালতকে অনুরোধ করব, যাতে কোনো বেঞ্চই এই দুর্নীতিবাজদের আবেদন গ্রহণ না করেন।

সোনালী সংবাদের সম্পাদক লিয়াকত আলী বলেন, বিএমডি সরকারি প্রতিষ্ঠান। কয়েক মাস আগেই এই বিএমডিএর সেচের পানি না পেয়ে দুই আদিবাসী কৃষক আত্মহত্যা করেছিলেন। এই প্রতিষ্ঠানের অনিয়ম নিয়ে সব সময় রাজশাহীর সাংবাদিকরা সোচ্চার। আমরা বুলবুল ও রুবেলের ওপর হামলার বিচার চাই।

বাংলাদেশ ফেডারেল সাংবাদিক ইউনিয়নের ভারপ্রাপ্ত মহাসচিব রাশেদ রিপন বলেন, বাংলাদেশের ফেডারেল সাংবাদিক ইউনিয়ন এ ঘটনার সঠিক বিচার দেখতে চায়।

রাজশাহী সাংবাদিক ইউনিয়নের সভাপতি রফিকুল ইসলাম বলেন, সুষ্ঠু বিচার না পাওয়া পর্যন্ত আন্দোলন চালিয়ে যাব। প্রয়োজনে বিএমডিএ কার্যালয় ঘেরাও করব।

এ সময় রাজশাহী সাংবাদিক ইউনিয়নের সাধারণ সম্পাদক তানজিমুল হক, সুশাসনের জন্য নাগরিকের (সুজন) রাজশাহীর সভাপতি আহমদ সফিউদ্দিন, রাজশাহী রক্ষা সংগ্রাম পরিষদের সাধারণ সম্পাদক জামাত খান প্রমুখ বক্তব্য দেন।