বাসে কথা কাটাকাটির জেরে পটুয়াখালীর এক সাংবাদিককে পিটিয়ে আহত করেছেন এক যাত্রী ও তাঁর সহযোগীরা। গত মঙ্গলবার রাত ১০টার দিকে পটুয়াখালী ব্রিজের ঢালে ঢাকা-কুয়াকাটাগামী ক্ল্যাসিক মেঘনা পরিবহনের একটি বাসে এ ঘটনা ঘটে। আহত সাংবাদিক সঞ্জয় দাস লিটু বর্তমানে পটুয়াখালী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন।

আহত সাংবাদিক সঞ্জয় দাস লিটু জানান, তিনি তাঁর প্রতিষ্ঠানের কাজ শেষে বাড়ি ফিরতে মঙ্গলবার বিকেল ৫টায় ঢাকা থেকে ক্ল্যাসিক মেঘনা পরিবহনের বাসটিতে ওঠেন। পদ্মা সেতুর আগে গাড়ি চালানো নিয়ে এক যাত্রীর সঙ্গে তাঁর কথা কাটাকাটি হয়। বিষয়টি তখন মীমাংসা হলেও রাত সোয়া ১০টার দিকে বাসটি পটুয়াখালী ব্রিজের ঢালে থামালে ওই যাত্রী মোবাইল ফোনে আরও কয়েকজনকে ডেকে নিয়ে তাঁর ওপর হামলা চালান। পরে বাসে থাকা বরগুনার সাংবাদিক মনির হোসেন কামাল তাঁকে উদ্ধার করে পটুয়াখালী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করেন।

সাংবাদিক মনির হোসেন কামাল বলেন, বাসটি পটুয়াখালীর ব্রিজের ঢালে থামার সঙ্গে সঙ্গে ওই ব্যক্তিরা লিটুর ওপর হামলা চালান। হামলার সময় ওই যাত্রী নিজেকে পটুয়াখালীর শীর্ষ পাঁচ সন্ত্রাসীর মধ্যে একজন বলে দাবি করেন।

এ ঘটনায় স্থানীয় সংবাদকর্মীরা তীব্র নিন্দা জানিয়েছেন। ঘটনায় জড়িতদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবিও করেছেন। পটুয়াখালী থানার ওসি মো. মনিরুজ্জামান জানান, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (সদর সার্কেল) মোহাম্মদ সাজেদুল ইসলাম সজল, তিনিসহ পুলিশের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা হাসপাতালে গিয়ে আহত সাংবাদিকের খোঁজখবর নিয়েছেন। প্রাথমিক তথ্যের ভিত্তিতে তাঁরা জড়িতদের খুঁজে বের করার চেষ্টা করছেন।