দিনাজপুরের ঘোড়াঘাট উপজেলায় চুরির অভিযোগে বিজয় নামে এক কিশোরকে পিলারের সঙ্গে বেঁধে নির্যাতনের ঘটনা ঘটেছে। গত মঙ্গলবার রাতে উপজেলার পালশা ইউনিয়নের ডুগডুগিহাট বাজারে এ ঘটনা ঘটে।

বিজয় (১৭) ডুগডুগিহাট বাজারের পরিচ্ছন্নতাকর্মী শ্রী মানিকের ছেলে।

নির্যাতনের ভিডিও ফেসবুকে ছড়িয়ে পড়লে পুলিশ বুধবার দু'জনকে আটক করে। তাঁরা হলেন- ইউনিয়নের দেওগ্রামের আলম মিয়া (৬২) ও আলম হোসেন (৬৫)। তাঁরা ডুগডুগিহাট বাজারের নিরাপত্তা প্রহরী।

স্থানীয়রা জানান, ডুগডুগিহাট বাজারের হাবিবুর রহমানের মুদি দোকানের শাটার ভেঙে মঙ্গলবার রাতে ভেতরে ঢোকে বিজয়। শাটার ভাঙা দেখে বাজারের নিরাপত্তা প্রহরীরা মালিককে খবর দেন। তিনি এসে বিজয়কে দোকান থেকে বের করে আনেন। পরে দোকানের ড্রয়ার থেকে টাকা চুরি হয়েছে দাবি করে বিজয়কে ভবনের পিলারের সঙ্গে বেঁধে বেদম মারধর করেন নিরাপত্তা প্রহরীরা।

ভিডিওতে দেখা যায়, বিজয়ের দুই হাত উল্টো করে পিলারের সঙ্গে বাঁধা। দু'জন লাঠি দিয়ে পেটাচ্ছেন। বিজয় চিৎকার করে কান্নাকাটি করছে। সে বলছে, 'মুই আর চুরি করুম না, মোক মাফ করে দেও।' এ সময় চুল ধরে তাকে চড়থাপ্পড় মারা হয়।

ঘোড়াঘাট থানার ওসি আবু হাসান কবির জানান, আইন হাতে তুলে নেওয়ায় দু'জনকে আটক করেছি। নির্যাতনের শিকার কিশোরের বাবা আইনি প্রতিকার না চাইলে পুলিশ বাদী হয়ে মামলা করবে।