যশোরের শার্শা উপজেলায় নিজ বাড়িতে দলবদ্ধ ধর্ষণের শিকার হয়েছে এক এসএসসি পরীক্ষার্থী। গত বুধবার রাত ১১টার দিকে উপজেলার নিজামপুর ইউনিয়নের বড় নিজামপুর গ্রামে এ ঘটনা ঘটে।

এ ঘটনায় ভুক্তভোগীর মা বৃহস্পতিবার শার্শা থানায় পাঁচজনের বিরুদ্ধে মামলা করেন। পরে পুলিশ গ্রামের হাসান আলী (২০) ও মাসুদ রানাকে (২১) গ্রেপ্তার করে।

পুলিশ ও স্থানীয় সূত্র জানায়, ওই কিশোরীর মা অসুস্থ হয়ে হাসপাতালে ভর্তি। বাড়িতে একা থাকার সুযোগ নিয়ে বুধবার রাতে হাসান আলী তার বন্ধু মাসুদের সঙ্গে বাড়িতে ঢুকে স্কুলছাত্রীকে ধর্ষণ করে। এ সময় তাদের সহযোগী মো. নুরুজ্জামান (২৭), মো. সাকিব (২৮) ও নাসিম হোসেন (২৮) মোবাইল ফোনে ভিডিও করে। পরে হাসান ও মাসুদকে ঘরে আটকে রেখে বাকিরাও ধর্ষণ করে পালিয়ে যায়। খবর পেয়ে স্থানীয়রা হাসান ও মাসুদকে পুলিশে দেন।

শার্শা থানার ওসি মামুন খান জানান, মামলার পর দু'জনকে গ্রেপ্তার দেখানো হয়েছে। বাকি আসামিদের ধরতে অভিযান অব্যাহত রয়েছে।

তিনি আরও জানান, বৃহস্পতিবার ধর্ষণের শিকার স্কুলছাত্রীকে পুলিশ পাহারায় এসএসসি পরীক্ষা দেওয়ার ব্যবস্থা করা হয়। যশোর আদালতে জবানবন্দি শেষে স্বাস্থ্য পরীক্ষার জন্য তাকে যশোর জেনারেল হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে বলে জানান তিনি।