চট্টগ্রামের পটিয়া থেকে উজ্জ্বল সেন (৩০) নামে এক যুবকের রক্তাক্ত মরদেহ উদ্ধার করা হয়েছে।

বৃহস্পতিবার রাত পৌনে ১২টার দিকে চট্টগ্রাম-কক্সবাজার মহাসড়কের কচুয়াই বিসিক এলাকার বিপরীতে পৌরসভার ময়লার স্তুপের পাশ থেকে ওই যুবকের মরদেহ উদ্ধার করা হয়।

উজ্জ্বলের বাড়ি উপজেলার খরনা ইউনিয়নের মোজাফফরবাদ গ্রামে। তিনি ওই এলাকার বাবুল সেনের ছেলে এবং চট্টগ্রাম নগরের একটি পোশাক কারখানায় কাজ করতেন।

পটিয়া থানার উপপরিদর্শক (এসআই) সঞ্জয় ঘোষ সমকালকে এসব তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

তিনি বলেন, রাতে পথচারীরা সড়কের পাশে ওই যুবকের মরদেহ পড়ে থাকতে দেখে পুলিশকে জানায়। খবর পেয়ে ঘটনাস্থল থেকে উজ্জ্বলের রক্তাক্ত মরদেহ উদ্ধার করে সুরতহাল রিপোর্ট করা হয়। পরে চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের মর্গে পাঠানো হয়।

এসআই আরও বলেন, ওই যুবকের মাথার পেছনে হাঁটুর ওপরে ও কোমরের নিচে আঘাতের চিহ্ন রয়েছে। বুকেও সামান্য আঘাতের চিহ্ন আছে। এ ঘটনায় মামলার প্রস্তুতি চলছে।

স্থানীয় হোটেল মালিক শফিউল আলম সমকালকে বলেন, প্রায়ই এ স্থানে ছিনতাইয়ের ঘটনা ঘটে। গত দুদিন আগেও এক চাকুরীজিবীকে ছুরি দেখিয়ে ছিনতাই করে ছিনতাইকারীরা। পৌরসভার লাইট না থাকায় ওই এলাকা অন্ধকার থাকে। এ সুযোগে একের পর এক এসব ঘটনা ঘটছে।

পটিয়া থানার ওসি রেজাউল করিম মজুমদার বলেন, এটা হত্যা নাকি দুর্ঘটনা তা এখনও পরিষ্কার নয়। মূল ঘটনা বের করার পুলিশি তৎপরতা চলমান রয়েছে।