নাটোরের বড়াইগ্রামে সন্তানের সামনে স্ত্রী বিউটি বেগমকে ধারালো হাঁসুয়া দিয়ে গলা কেটে হত্যা করেছে আব্দুল বারেক। শনিবার রাত আড়াইটার দিকে গোপালপুর ইউনিয়নের গোপালপুর স্কুলপাড়া এলাকায় এ ঘটনা ঘটে। রোববার সকালে পুলিশ লাশ উদ্ধার করেছে।

আব্দুল বারেক ওই গ্রামের মৃত আজিজ সরকারের ছেলে। সে পেশায় অটোভ্যান চালক। বিউটি বেগম একই এলাকার আলতাফ হোসেনের মেয়ে। তাদের সংসারে ২ মেয়ে ও ১ ছেলে রয়েছে।
প্রতিবেশীরা জানান, বিউটি বেগমের সঙ্গে স্থানীয় এক মিস্ত্রির অনৈতিক সম্পর্ক রয়েছে বলে অভিযোগ করে আসছিল আব্দুল বারেক। এ নিয়ে প্রায়ই তাদের মধ্যে ঝগড়া-বিবাদ হতো। শনিবার রাতেও তাদের মধ্যে মোবাইল ফোনে কথা বলা নিয়ে ঝগড়া হয়। এক পর্যায়ে তাদের মেয়ে মাহি খাতুনের (১২) সামনেই ধারালো হাঁসুয়া দিয়ে গলা কেটে বিউটি বেগমকে হত্যা করে আব্দুল বারেক পালিয়ে যায়। মাহির চিৎকারে প্রতিবেশীরা এসে বিউটি বেগমের রক্তাক্ত লাশ মেঝেতে পড়ে থাকতে দেখে ৯৯৯-এ ফোন করেন। খবর পেয়ে পুলিশ লাশ উদ্ধার করে নাটোর আধুনিক সদর হাসপাতাল মর্গে পাঠায়।
বড়াইগ্রাম থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা আবু সিদ্দিক বলেন, এ ঘটনায় হত্যা মামলার প্রস্তুতি চলছে। নিহতের স্বামী আব্দুল বারেক পলাতক। তাকে গ্রেপ্তারের চেষ্টা চলছে।