মুন্সীগঞ্জের সিরাজদীখান উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসাধীন কিশোরীকে ধর্ষণের মামলায় মো. রাজিব মিয়া নামে এক ওয়ার্ডবয়কে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। শুক্রবার রাতে হাসপাতালের ১৩ নম্বর ওয়ার্ডে ধর্ষণের শিকার হন ওই কিশোরী (১৫)। রোববার তার মা বাদী হয়ে মামলা করলে বিকেলেই রাজিবকে গ্রেপ্তার করে সিরাজদীখান থানা পুলিশ।

গ্রেপ্তার রাজিবের বাড়ি ময়মনসিংহের ফুলপুর উপজেলার কমলাপুর গ্রামে। সে আউটসোর্সিংয়ে সিরাজদীখান উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ওয়ার্ডবয় হিসেবে কর্মরত।
হাসপাতাল সূত্র জানায়, বৃহস্পতিবার ওই কিশোরীকে অসুস্থ অবস্থায় স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করেন স্বজনরা। ১৩ নম্বর ওয়ার্ডে চিকিৎসাধীন মেয়েটিকে শুক্রবার রাত ১টা থেকে ৩টার মধ্যে কৌশলে ধর্ষণ করে ওয়ার্ডবয় রাজিব। শনিবার রাতেও একই কাজে লিপ্ত হয় সে। রোববার সকালে মাকে এ ঘটনা জানায় মেয়েটি। তিনি উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা আঞ্জুমান আরার কাছে এ বিষয়ে অভিযোগ করেন। তিনি বিষয়টি পুলিশে জানান।
ডা. আঞ্জুমান আরা এ বিষয়ে বলেন, মেডিকেল পরীক্ষার জন্য ভুক্তভোগী কিশোরীকে হেফাজতে নিয়েছে পুলিশ।
সিরাজদীখান থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) একেএম মিজানুল হক জানান, ওই কিশোরীর মায়ের অভিযোগের পরিপ্রেক্ষিতে থানায় মামলা নেওয়া হয়। পরে ওয়ার্ডবয় রাজিবকে গ্রেপ্তার করা হয়।