রংপুরে জাপানি নাগরিক হোশি কুনিও হত্যা মামলায় নিষিদ্ধ ঘোষিত জামা'আতুল মুজাহিদীন বাংলাদেশের (জেএমবি) সদস্য ইছাহাক আলীকে খালাস দিয়ে হাইকোর্টের দেওয়া রায় স্থগিত করা হয়েছে।

আপিল বিভাগের চেম্বার আদালতের বিচারপতি এম ইনায়েতুর রহিম রোববার রাষ্ট্রপক্ষের আবেদনের শুনানি নিয়ে এই স্থগিতাদেশ দেন।

আদালতে রাষ্ট্রপক্ষে শুনানি করেন অতিরিক্ত অ্যাটর্নি জেনারেল শেখ মোহাম্মদ মোরশেদ। অন্যদিকে আসামিপক্ষে ছিলেন আইনজীবী আহসান উল্লাহ।

হোশি কুনিওকে হত্যার দায়ে জেএমবির চার সদস্যের মৃত্যুদণ্ড বহাল রেখে গত ২১ সেপ্টেম্বর রায় দেন হাইকোর্ট। মৃত্যুদণ্ড বহাল থাকা চারজন হলেন- জেএমবির আঞ্চলিক কমান্ডার মাসুদ রানা ওরফে মামুন, সদস্য লিটন মিয়া ওরফে রফিক, সাখাওয়াত হোসেন ও আহসান উল্লাহ আনসারী ওরফে বিপ্লব (পলাতক)।

রায়ে ইছাহাক আলীকে খালাস দেওয়া হয়। এর আগে গত বৃহস্পতিবার ইছহাক আলীকে খালাস দিয়ে হাইকোর্টের দেওয়া রায় স্থগিতের আবেদন করে রাষ্ট্রপক্ষ।

প্রসঙ্গত, হোশি কুনিও ২০১১ সালে বাংলাদেশে আসেন। তিনি রংপুরের কাউনিয়া উপজেলার কাচু আলুটারি গ্রামে গবাদি পশুর খাদ্য হিসেবে উন্নত জাতের ঘাসের চাষ করতেন।

২০১৫ সালের ৩ অক্টোবর ওই গ্রামে ৬৬ বছর বয়সী কুনিওকে গুলি করে হত্যা করা হয়। পরে এ মামলায় ২০১৭ সালের ২৮ ফেব্রুয়ারি পাঁচ জঙ্গিকে মৃত্যুদণ্ড দেন রংপুরের বিশেষ জজ আদালত। এরপর আসামিদের ডেথ রেফারেন্স অনুমোদনের জন্য নথি হাইকোর্টে পাঠানো হয়। এ ছাড়া আসামিরাও আপিল ও জেল আপিল করেন।