চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ে (চবি) ছাত্রলীগে যোগদানের জন্য কর্মী সংগ্রহ করা নিয়ে 'বিজয়' ও 'সিএফসি'র দুই কর্মীর মধ্যে মারামারির ঘটনা ঘটেছে। 

রোববার দুপুরে চবির অগ্রণী ব্যাংক শাখায় ভর্তির টাকা জমা দেওয়ার জন্য লাইনে দাঁড়ান স্নাতক ১ম বর্ষের শিক্ষার্থীরা। সেখানে চবি ছাত্রলীগের বগিভিত্তিক গ্রুপ সিএফসি ও বিজয়ের কর্মীরা তাদের গ্রুপের জন্য নতুন কর্মী সংগ্রহ করার উদ্দেশ্যে যান। এক পর্যায়ে কর্মী সংগ্রহ করা নিয়ে সেখানে সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে। 

সংঘর্ষে জড়ানো দুই কর্মী হলেন, ইতিহাস বিভাগের ২০১৯-২০ শিক্ষাবর্ষের মোবারক মিয়া এবং আইন বিভাগের মনিরুজ্জামান। মোবারক মিয়া 'বিজয়' গ্রুপের কর্মী এবং মনিরুজ্জামান সিএফসি গ্রুপের কর্মী।

সংঘর্ষের পর রোববার সন্ধ্যায় আবার মনিরুজ্জামানকে স্টাম্প দিয়ে পিটিয়ে আহত করেন মোবারক ও 'বিজয়' গ্রুপের কর্মীরা। মাথায় স্টাম্পের আঘাত লাগায় চবি মেডিকেল সেন্টারে চিকিৎসাধীন আছে মনিরুজ্জামান।

এ বিষয়ে মনিরুজ্জামান বলেন, 'আমি ও মোবারক একই বিল্ডিংয়ে থাকি। সকালে আমাদের মাঝে ব্যাংকের ওখানে কিছু কথাকাটি হয়। এ বিষয়টি আমাদের সিনিয়রদের সাথে কথা বলে মীমাংসা হয়ে গেছে। কিন্তু মোবারক ও বিজয়ের কিছু ছেলে আমাকে ডেকে নিয়ে পরে আবার মারধর করে স্টাম্প দিয়ে। '

মারধরের বিষয়টি অস্বীকার করে মোবারক বলেন, 'মারধরের কথাটি সম্পূর্ণ মিথ্যা ও বানোয়াট। মনিরুজ্জামান আমার বন্ধু। সকালে একটু কথা কাটাকাটি হয়, পরে বিষয়টি মীমাংসা হয়ে গেছে।'