ঢাকার ধামরাইয়ে পৃথক দুটি অটোরিকশা দুর্ঘটনায় এক পোশাক শ্রমিকসহ দুইজন নিহত হয়েছেন। এ সময় আহত হয়েছেন আরও ছয় জন। সোমবার সকালে ধামরাই-সাটুরিয়া আঞ্চলিক মহাসড়কের বাসনা কবরস্থানের পূর্বপাশে ও বাসনা বাজার বাসস্ট্যান্ডে এ দুর্ঘটনা ঘটে।

নিহতরা হলেন- ধামরাইয়ের টোপেরবাড়ি গ্রামের পরেশ সরকারের ছেলে পোশাক শ্রমিক প্রতুল সরকার (৪৮) ও বাসনা সরদারপাড়া গ্রামের ডেঙ্গরা সরদারের ছেলে মুদি ব্যবসায়ী নবুল্লা সরদার (৬৫)। 

পুলিশ ও স্থানীয়রা জানান, প্রতুল সরকার সোমবার সকাল ৭টার দিকে নিজ বাড়ি থেকে সিএনজিচালিত অটোরিকশায় করে কর্মস্থলের উদ্দেশে রওনা হন। ধামরাই-সাটুরিয়া আঞ্চলিক মহাসড়কের বাসনা কবরস্থানের পূর্ব পাশে পৌঁছালে অপরদিক আসা একটি সিএনজিচালিত অটোরিকশার সঙ্গে মুখোমুখি সংঘর্ষ হয়। এ সময় ঘটনাস্থলেই প্রতুল সরকার নিহত হন। আহত হন অটোরিকশার আরও ৬ যাত্রী। তাদেরকে উদ্ধার করে স্থানীয় হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

এদিকে সকাল ৯টার দিকে একই সড়কের ধামরাইয়ের বাসনা বাজার বাসস্ট্যান্ডে রাস্তা পার হওয়ার সময় সিএনজিচালিত অটোরিকশার চাপায় নবুল্লা সরদার নামে এক ব্যক্তি নিহত হয়েছেন। তিনি ওই বাসনা বাজারের মুদি ব্যবসায়ী ছিলেন।

ধামরাইয়ের কাওয়ালীপাড়া বাজার পুলিশ তদন্ত কেন্দ্রের পুলিশ পরিদর্শক (নিঃ) নজরুল ইসলাম বলেন, পৃথক দুর্ঘটনায় নিহত দুই ব্যক্তির লাশই পরিবারের কাছে হস্তান্তর করা হয়েছে। এ ছাড়া দুর্ঘটনাকবলিত সিএনজি অটোরিকশা জব্দ করা হয়েছে।