ফেনী জেলা পরিষদ নির্বাচনের সব পদেই শাসক দল আওয়ামী লীগের প্রার্থীরা জয় পেয়েছেন। কোনো পদে বিরোধী দল বা আওয়ামী লীগের বিদ্রোহী প্রার্থীও ছিলেন না। ফলে আওয়ামী লীগের প্রার্থীরা পরিষদের চেয়ারম্যান ও ৮ সদস্য পদে বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় জয় পেয়েছেন।

জেলা নির্বাচন কর্মকর্তা নাসির উদ্দিন পাটোয়ারী জানান, চেয়ারম্যান ও সদস্য পদগুলোতে একজন করে প্রার্থী মনোনয়নপত্র জমা দিয়েছেন। যাচাই-বাছাইয়ের পর প্রতিদ্বন্দ্বী না থাকায় তাঁদের বেসরকারিভাবে নির্বাচিত ঘোষণা করা হয়েছে।

জেলা বিএনপির সদস্য সচিব আলাল উদ্দিন আলাল দাবি করেন, গত এক দশক ধরে ফেনীতে নির্বাচন নেই।

বিএনপি এই নেতা আরও বলেন, অবাধ ও সুষ্ঠু হলে কোনো নির্বাচনে আওয়ামী লীগ একটা পদও পাবে না। প্রশাসনের সহযোগিতায় ও সন্ত্রাসের মাধ্যমে বিরোধীদলীয় প্রার্থীদের নির্বাচনে অংশ নিতে দেওয়া হচ্ছে না। হামলা-মামলার ভয় দেখিয়ে সাধারণ ভোটারদের নির্বাচন থেকে দূরে রাখা হয়েছে।

জেলা আওয়ামী লীগের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি হাফেজ আহাম্মদ বলেন, এ নির্বাচনে যাঁরা ভোটার তাঁরা হচ্ছেন- পৌর মেয়র, উপজেলা চেয়ারম্যান, ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান ও মেম্বার। এসব পদের প্রায় সবাই আওয়ামী লীগ সমর্থক। এ কারণে অন্য কোনো দল মনোনয়ন দাখিল করেনি।

তিনি আরও বলেন, ফেনী আওয়ামী লীগে কোনো কোন্দল নেই। দলীয় শৃঙ্খলা ভেঙে তাই কেউ বিদ্রোহী প্রার্থী হননি।