জামালপুরে পল্লী বিদ্যুতের সেচ গ্রাহকদের চুরি হওয়া ১২টি ট্রান্সফরমার উদ্ধার করা হয়েছে। এর মধ্যে পুকুরের তলদেশ থেকেও পাঁচটি ট্রান্সফরমার উদ্ধার করা হয়।

পুলিশ ও পল্লী বিদ্যুতের প্রকৌশলীরা সোমবার দিনভর অভিযান চালিয়ে তিনটি ভিন্ন ভিন্ন জায়গা থেকে এসব ট্রান্সফরমার উদ্ধার করে।

জানা যায়, গোপন সংবাদের ভিত্তিতে সোমবার পুলিশ নিয়ে অভিযানে নামে পল্লী বিদ্যুৎ প্রকৌশলীরা। এসময় তারা সদর উপজেলার পলিশা টেংগড়পাড় এলাকার ইজিবাইক চালক জাহিদের বাড়ি থেকে চারটি ট্রান্সফরমার উদ্ধার করে। এর কিছুক্ষণ পর কাঁচাশ্যাওরা গ্রামের আব্দুল কাদেরের পুকুরের তলদেশ থেকে পাঁচটি এবং পুকুরপাড় থেকে দুটি ট্রান্সফরমার উদ্ধার হয়।

এ সময় পুকুরের মালিক আব্দুল কাদেরকে গ্রেপ্তার করে পুলিশ। এছাড়া বেলটিয়া পলিশা এলাকার মাহবুব আলম গেন্দার বাড়ির তালাবদ্ধ ঘর থেকে আরও একটি ট্রান্সফরমার উদ্ধার করা হয়। পরে এসব ট্রান্সফরমার জামালপুর সদর থানায় নিয়ে যাওয়া হয়।

এ ঘটনায় পল্লী বিদ্যুৎ সমিতির এজিএম (প্রশাসন) দেলোয়ার হোসেন বাদী হয়ে জামালপুর থানায় মামলা করেছেন।

জামালপুর পল্লী বিদ্যুৎ সমিতির ডিজিএম (টেকনিক্যাল) আকরাম হোসেন সমকালকে বলেন, সম্প্রতি জেলার বিভিন্ন এলাকা থেকে সেচ গ্রাহকদের অন্তত ৩২টি ট্রান্সফরমার চুরির ঘটনা ঘটে। এতে ভোগান্তিতে পড়েন ওইসব গ্রাহকরা। ট্রান্সফরমার চুরি বন্ধে তারা বিভিন্ন সময় সচেতনতামূলক উঠান বৈঠক, সভা ও গ্রাহক সমাবেশ করেছেন। বিভিন্ন থানায় একাধিক জিডি ও মামলা দায়ের করা হয়।