পঞ্চগড়ে করতোয়া নদীতে নৌকা ডুবির ঘটনায় নিখোঁজ থাকা আরও ৪ নারীর মরদেহ উদ্ধার হয়েছে দিনাজপুরে। এ নিয়ে গত দুই দিনে দিনাজপুরে ১২ জনের মরদেহ উদ্ধার করা হলো। বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন বীরগঞ্জ থানার ওসি সুব্রত সরকার ও কোতয়ালী থানার ওসি তানভিরুল ইসলাম। 

উদ্ধারকৃতরা হলেন- পঞ্চগড় জেলার বোদা উপজেলার তেপুকুরিয়া গ্রামের সুধীর চন্দ্র বর্মনে স্ত্রী রত্না রানী (৪০), একই উপজেলার মাড়েয়া গেদিয়া পাড়া গ্রামের ফটিক চন্দ্র রায়ের স্ত্রী মনিকা রানী (৪০), সাকোয়া লক্ষ্মীগড় ডাঙাপাড়া গ্রামের শৈল বালা (৫৫) ও লক্ষ্মীনগর (ডাঙাপাড়া) এলাকার সনেকা রানী (২৮)। 

বীরগঞ্জ থানার ওসি সুব্রত সরকার জানান, মঙ্গলবার উপজেলার জয়ন্তিয়ার ঘাট মধুরাপুর আত্রাই নদী থেকে এক নারী এবং আত্রাই নদীর কাশিমনগর বাদলা ঘাট থেকে এক নারীর মরদেহ উদ্ধার করা হয়। এর আগে সোমবার সন্ধ্যায় কাশিমনগর বাদলা ঘাট থেকে আরও এক নারীর মরদে উদ্ধার হয়। মরদেহগুলো শনাক্ত সাপেক্ষে পরিবারের কাছে হস্তান্তর করা হয়েছে।

এদিকে দিনাজপুর কোতয়ালী থানার ওসি তানভিরুল ইসলাম জানান, উপজেলার ২নং সুন্দরবন ইউনিয়নের বীরগাঁও এলাকার পার্শ্ববর্তী আত্রাই নদী থেকে সনেকা রানী নামে একজনের মরদেহ উদ্ধার করা হয়। ৯৯৯-এর কলের মাধ্যমে নদীতে মরদেহ ভেসে ওঠার খবর জানার পর সেটি উদ্ধার করা হয়। পরে মরদেহটি পরিবারের কাছে হস্তান্তর করা হয়।