ঢাকা থেকে বাসে বরিশালে আসার পথে ‘অজ্ঞান পার্টির’ খপ্পরে পড়ে দেলোয়ার হোসেন (৪০) নামের এক ইন্সুরেন্স কর্মকর্তা মারা গেছেন বলে অভিযোগ উঠেছে। তিনি বরিশাল নগরের দক্ষিণ রুপাতলী এলাকার হাওলাদার বাড়ির মৃত আশ্রাব আলি হাওলাদারের ছেলে। ঢাকায় তিনি একটি ইন্সুরেন্স কোম্পানিতে চাকরি করতেন বলে জানা গেছে।

মৃত দেলোয়ারের স্বজনরা জানান, বৃহস্পতিবার বিকেলে ঢাকার শ্যামলী থেকে সুগন্ধা পরিবহনের একটি বাসে বরিশালের উদ্দেশে রওনা দেন দেলোয়ার। রাত আটটার দিকে বাসটি বরিশাল নথুল্লাবাদ বাস টার্মিনালে পৌঁছালে স্বজনরা জানতে পারেন দেলোয়ার গাড়িতে অজ্ঞান পার্টির খপ্পরে পড়েছেন। পরে তাকে উদ্ধার করে বরিশাল শের-ই বাংলা চিকিৎসা মহাবিদ্যালয় (শেবাচিম) হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। পরে শুক্রবার দুপুরে শেবাচিম হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় দেলোয়ার মারা যান।

দেলোয়ারের বড় ভাই মো. আলাউদ্দিন (জর্জ) বলেন, চাকরির কারণে দেলোয়ার ঢাকায় থাকত এবং প্রায় প্রতি সপ্তাহে বরিশালে আসত। অজ্ঞান পার্টির খপ্পরে পড়ে আমার ভাইয়ের জীবনটাই শেষ হয়ে গেল। তার স্ত্রী ও ৪ কন্যা সন্তান রয়েছে।

এ বিষয়ে বরিশাল মহানগর পুলিশের কোতয়ালি মডেল থানার পরিদর্শক (তদন্ত) ছগির হোসেন বলেন, দেলোয়ার হোসেনের মৃত্যু কী কারণে হয়েছে তা নিয়ে সন্দেহ রয়েছে। তাই সুরতহাল প্রতিবেদন তৈরির পর তার মরদেহ ময়নাতদন্তের জন্য শেবাচিম হাসপাতালের মর্গে রাখা হয়েছে।