পটুয়াখালীর কলাপাড়া উপজেলায় খালি বাসায় আটকে এক গৃহবধূকে দলবদ্ধ ধর্ষণের অভিযোগ পাওয়া গেছে। শনিবার ওই নারী মামলা করার পর পুলিশ তিন আসামিকে গ্রেপ্তার করেছে। গ্রেপ্তার তিনজন হলো- শহিদুল ইসলাম, মালেক হাওলাদার ও আলমগীর হোসেন। দুপুরে তাদের আদালতে পাঠানো হয়েছে।

পুলিশ জানায়, নারায়ণগঞ্জ এলাকার ওই গৃহবধূর সঙ্গে তাঁর স্বামীর কিছুদিন ধরে বিরোধ চলে আসছিল। বিরোধ মোটাতে তিনি পাশের ফ্লাটের এক নারীর শরণাপন্ন হন। ওই নারীর মাধ্যমে আসামি শহিদুলের সঙ্গে পরিচয় হয় গৃহবধূর। পরে শহিদুল কলাপাড়ার এক ফকিরের মাধ্যমে ২০ হাজার টাকায় সমস্যা সমাধান করে দেবে বলে জানায় গৃহবধূকে। টাকা নিয়ে ২৩ সেপ্টেম্বর কলাপাড়ায় যাওয়ার পর শহিদুল নিজ বাড়িতে তাঁকে ওঠায়। পরদিন সন্ধ্যায় ফকিরের কাছে তদবির আনতে যেতে হবে বলে একটি খালি বাসায় নিয়ে তাঁকে দলবদ্ধ ধর্ষণ করা হয়। ২৫ তারিখ রাত ২টার দিকে আসামিরা গৃহবধূকে ছেড়ে দিলে তিনি বাসে রাজধানীতে আসেন। পরে অভিভাবকদের বিষয়টি জানালে শুক্রবার কলাপাড়া থানায় গিয়ে তাঁরা অভিযোগ দেন।
কলাপাড়া থানার ওসি মো. জসীম জানান, মামলার তিন আসামিকেই গ্রেপ্তার করা হয়েছে। আর গৃহবধূর শারীরিক পরীক্ষার জন্য পটুয়াখালী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।