বিএনপির বিভাগীয় গণসমাবেশকে কেন্দ্র করে উৎসব আর মিছিলের নগরীতে পরিণত হয়েছে সিলেট। বিশেষ করে সমাবেশস্থল সরকারি আলিয়া মাদরাসা মাঠের আশাপাশে বিরাজ করছে অন্যরকম পরিবেশ। 

একের পর এক মিছিল প্রবেশ করছে নগরীতে। নেতাকর্মীরা বিভিন্ন স্লোগান দিয়ে যোগ দিচ্ছে সমাবেশস্থলে। রাজপথ যেনো খণ্ড খণ্ড মিছিলে প্রকম্পিত। আজ সকাল ১০টার আগে থেকেই বিভিন্ন স্থান হতে মিছিল আসতে শুরু করে।  

দ্রব্যমূল্যের ঊর্ধ্বগতির ও নেতা-কর্মীদের হত্যার প্রতিবাদ, নিরপেক্ষ সরকারের অধীনে নির্বাচন এবং খালেদা জিয়ার মুক্তি ও তারেক রহমানের বিরুদ্ধে মামলা প্রত্যাহারের দাবিতে এ গণসমাবেশ হচ্ছে। 

সমাবেশে যোগদিতে বৃহস্পতিবার থেকেই সিলেটে আসতে শুরু করেন নেতাকর্মীরা। বিশেষ করে ধর্মঘটের কারণে শুক্রবার বিপুল সংখ্যক নেতাকর্মী সিলেট পৌঁছান।

আজ সকাল থেকে দুপুর ১২টা পর্যন্ত কমপক্ষে শতাধিক মিছিল প্রবেশ করে সমাবেশস্থলে। এরমধ্যে ছাতক থেকে সাবেক এমপি কলিম উদ্দিন মিলন, বিএনপির কেন্দ্রীয় নেতা মিজানুর রহমান চৌধুরী মিজান, সুনামগঞ্জের সাবেক এমপি নাসির উদ্দিন খান, বিএনপি নেতা কামরুজ্জামান, কানাইঘাট থেকে মামুনুর রশিদ মামুনসহ বেশ কিছু নেতার সমর্থকরা কয়েকশ নেতাকর্মী নিয়ে মাদরাসা মাঠে প্রবেশ করেন। 

এ ছাড়া নগরীর বিভিন্ন ওয়ার্ড বিএনপি, সদর উপজেলা বিএনপি, কোম্পানীগঞ্জ বিএনপি, দক্ষিণ সুরমা বিএনপি, জগন্নাথপুরসহ প্রত্যেক উপজেলা থেকে মিছিল নিয়ে আসতে দেখা যায়। 

এর আগে শুক্রবার মৌলভীবাজার, হবিগঞ্জ ও সুনামগঞ্জের শীর্ষ বিএনপি নেতাদের নেতৃত্বে শতশত কর্মী সমাবেশস্থলে পৌঁছান। 

ধর্মঘট শুরুর কারণে বিভিন্ন উপজেলা থেকে শুক্রবার রাতেই অনেক নেতাকর্মীরা সিলেট চলে আসেন। তারা নগরীতে অবস্থান করে সকালে মিছিল নিয়ে সমাবেশস্থলে উপস্থিত হন।

গণসমাবেশকে কেন্দ্র করে দুইদিন আগে মৌলভীবাজার, হবিগঞ্জ ও সুনামগঞ্জে পরিবহন ধর্মঘট আহ্বান করা হয়। আজ ভোর ৬টা থেকে আগামীকাল ভোর ৬টা পর্যন্ত সিলেট জেলায় ধর্মঘট ডাকে বাস মালিক ও পরিবহন শ্রমিক ঐক্য পরিষদ। ফলে ধর্মঘটের কবলে পড়েছে পুরো সিলেট বিভাগ। তবে ধর্মঘটকে উপেক্ষা করে কেউ সিএনজিচালিত অটোরিকশায়, কেউ মোটরসাইকেলে কেউ বা নৌকায় করে সিলেট পৌঁছান। 

ছাতকের উত্তরকুর্শী থেকে সমাবেশে যোগ দেওয়া বিএনপি কর্মী আলী নুর সমকালকে জানান, তিনি শুক্রবার রাতে সিলেট পৌঁছান। তবে আজকেও অনেকে বিভিন্ন মাধ্যমে সিলেটে এসেছেন।

বিশ্বানাথ উপজেলা থেকে আসা যুবদল কর্মী আব্দুল আলিম জানান, তারা ছোট ট্রাকে করে এসেছেন। রাস্তায় কেউ বাধা দেয়নি।

এদিকে গণসমাবেশ শুরু হয়েছে সকাল ১১টা থেকে। দুপুরের আগেই মাঠের অধিকাংশ পূর্ণ হয়েছে। বিকেলে সমাবেশে প্রধান অতিথির বক্তব্য দেবেন বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর। প্রধান বক্তা হিসেবে বক্তব্য দেবেন দলের স্থায়ী কমিটির সদস্য গয়েশ্বর চন্দ্র রায়।