দাদা বিয়ে করেছেন হাতির পিঠে চড়ে; বাবা মহিষের গাড়িতে করে। পারিবারিকভাবে চলে আসা এ ধারা বজায় রাখতে মহিষের গাড়ি করে বর বেশে কনের বাড়ি হাজির হন উপসহকারী মেডিকেল অফিসার উমর ফারুক। তিনি ফুলবাড়ী উপজেলা সদরের চন্দ্রখানা মুসল্লিপাড়া গ্রামের কৃষক ফজলুল হকের ছেলে।

লালমনিরহাট সদর উপজেলার কুলাঘাট ইউনিয়নের দেবদেবীর হাট এলাকার বেলাল হোসেনের মেয়ে বিলকিস আক্তারের সঙ্গে উমর ফারুকের বিয়ে ঠিক হয়। শুক্রবার রাতে বর স্বজনদের নিয়ে বিয়ে করার জন্য কনের বাড়ি লালমনিরহাটে যান। বরযাত্রীর বহরে ছিল দুটি মহিষের গাড়ি, সাতটি মাইক্রোবাস ও মোটরসাইকেল।

ফুলবাড়ী মহিলা ডিগ্রি কলেজের প্রভাষক জয়নাল আবেদীন জানান, মহিষের গাড়িতে চড়ে বিয়ে করতে যান ফারুক। এ দৃশ্য দেখে গ্রামের নারী-পুরুষ ভিড় করেন রাস্তার দু'পাশে। ফুল দিয়ে সাজানো মহিষের গাড়িতে থাকা বরকে থামিয়ে অনেকেই সেলফি তোলেন। সেই ছবি ফেসবুকে পোস্ট করেন।

বর উমর ফারুক জানান, পারিবারিক ধারা বজায় রাখতে তিনিও মহিষের গাড়িতে চড়ে বিয়ে করেছেন।

কনের বাবা বেলাল হোসেন জানান, জামাই মহিষের গাড়িতে এসেছে। তাকে দেখতে এলাকায় ভিড় জমে যায়। এভাবে বিয়ে করার ঘটনাটি স্মৃতি হয়ে থাকবে।