কিশোরগঞ্জের হোসেনপুর উপজেলায় ইটের আঘাতে আব্দুল্লাহ (৮) নামে এক স্কুলছাত্রের মৃত্যু হয়েছে। গত রোববার রাতে ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ (মমেক) হাসপাতালে চিকিৎসাধীন সে মারা যায়। আব্দুল্লাহ উপজেলার দক্ষিণ হারেঞ্জা গ্রামের কপিল উদ্দিনের ছেলে এবং উক্ত গ্রামের সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের দ্বিতীয় শ্রেণির ছাত্র। অভিযুক্ত কিশোর স্থানীয় হাফিজিয়া মাদ্রাসার ছাত্র।

পুলিশ ও স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, রোববার বিকেলে আব্দুল্লাহর সঙ্গে কিশোরের ঝগড়া হয়। একপর্যায়ে ইট দিয়ে আঘাত করলে সে মাটিতে লুটিয়ে পড়ে। পরে স্থানীয়রা তাকে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করে। সেখানে অবস্থার অবনতি হলে মমেক হাসপাতালে নেওয়া হয়। চিকিৎসাধীন সেখানেই সে মারা যায়।

দক্ষিণ হারেঞ্জা সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষক হোসনে আরা জানান, আব্দুল্লাহর ইচ্ছা ছিল স্কুলের জাতীয় পতাকা টানানোর দায়িত্ব নেবে। কিন্তু তার সে ইচ্ছা আর পূরণ হলো না।

হোসেনপুর থানার পরিদর্শক (তদন্ত) মো. আসাদুজ্জামান টিটু ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করেছেন। তবে এ ঘটনায় কোনো মামলা হয়নি।