দলীয় সরকারের অধীনে সুষ্ঠু, নিরপেক্ষ ও গ্রহণযোগ্য নির্বাচন সম্ভব নয় বলে মন্তব্য করেছেন সুশাসনের জন্য নাগরিকের (সুজন) সাধারণ সম্পাদক বদিউল আলম মজুমদার। তিনি বলেন, দেশের চলমান অর্থনৈতিক সংকট সমাধানে কিছু কার্যকর রাজনৈতিক সংস্কার দরকার। আর এই সংস্কারের প্রথম ও আবশ্যকীয় পদক্ষেপ হবে অবাধ, নিরপেক্ষ ও গ্রহণযোগ্য নির্বাচন করা।

আজ রোববার বিকেলে সুনামগঞ্জ পৌর শহরের শহীদ মুক্তিযোদ্ধা জগৎজ্যোতি পাবলিক লাইব্রেরি মিলনায়তনে 'কেবল অর্থনৈতিক সংস্কার নয়, সংকট সমাধানে প্রয়োজন রাজনৈতিক সংস্কার' শীর্ষক নাগরিক সংলাপে প্রধান অতিথির বক্তব্যে এসব কথা বলেন বদিউল আলম।

তিনি বলেন, 'এটা প্রমাণিত, দেশে দলীয় সরকারের অধীন সুষ্ঠু ও গ্রহণযোগ্য নির্বাচন সম্ভব নয়। দেশে এ পর্যন্ত ১১টি জাতীয় সংসদ নির্বাচন হয়েছে। এর মধ্যে চারটি হয়েছে তত্ত্বাবধায়ক সরকারের অধীন। এই চারটি নির্বাচন গ্রহণযোগ্য। বাকিগুলো নিয়ে দেশ-বিদেশে অনেক প্রশ্ন আছে।'

সুজন সম্পাদক বলেন, আইএমএফের ঋণ ফুটো কলসিতে পানি ঢালার মতো হতে পারে। গণতন্ত্রের ঘাটতি পূরণ, জনগণের ভোটাধিকার ফেরত, দুর্নীতি ও দুর্বৃত্তায়নের লাগাম টানা না হলে অর্থনৈতিক সংকট থেকেই যাবে।

তিনি আরও বলেন, কার্যকর গণতন্ত্রের জন্য প্রয়োজন নির্বাচিত প্রতিনিধিদের ব্যক্তি ও কোটারি স্বার্থের ঊর্ধ্বে উঠে রাষ্ট্র পরিচালনা করা। বহুদলীয় গণতান্ত্রিক মূল্যবোধের চর্চা এবং রাজনৈতিক প্রতিপক্ষের সঙ্গে আলোচনার ভিত্তিতে সিদ্ধান্ত গ্রহণ ও বাস্তবায়নের একটি রাজনৈতিক সংস্কৃতি গড়ে তোলা দরকার।

সুজনের জেলা কমিটির সহসভাপতি আলী হায়দারের সভাপতিত্বে ও সাধারণ সম্পাদক প্রভাষক ফজলুল করিমের সঞ্চালনায় সংলাপে অন্যদের মধ্যে বক্তব্য দেন মৌলিভীবাজার সরকারি কলেজের সাবেক অধ্যক্ষ সৈয়দ মুহিবুল ইসলাম, শান্তিগঞ্জ উপজেলা সুজন সভাপতি রাধিকা রঞ্জন তালুকদার, জামালগঞ্জ উপজেলা সুজনের সভাপতি মিসবাহ উদ্দিন, সুনামগঞ্জ সদর উপজেলা সুজন সভাপতি ফারুক আহমদ, সাবেক চেয়ারম্যান দরগাপাশা ইউনিয়ন সুজন সভাপতি জালাল উদ্দীন, সৃজন বিদ্যাপীঠের অধ্যক্ষ কানিজ সুলতানা প্রমুখ।