কক্সবাজারের ২২টি স্কুলের ১১০ শ্রেণিকক্ষের মধ্যে ৭৪টি নতুন নির্মাণ ও ৩৬টি সংস্কার করে তা প্রাথমিক শিক্ষা অধিদপ্তরের কাছে হস্তান্তর করেছে জাতিসংঘের শিশুবিষয়ক সংস্থা ইউনিসেফ। শিশুবান্ধব এসব শ্রেণিকক্ষে ৮ হাজারেরও বেশি শিক্ষার্থী নানামুখী সুবিধা পাবে বলে জানিয়েছে সংস্থাটি।

রোববার ইউনিসেফ জানায়, সরকারকে সহায়তার অংশ হিসেবে ইউনিসেফের নানামুখী উদ্যোগে এখন পর্যন্ত কক্সবাজারে ৬৫৭টি স্কুলের উন্নয়ন হয়েছে।

শ্রেণিকক্ষগুলো নির্মাণ ও সংস্কার করা হয়েছে গ্লোবাল পার্টনারশিপ ফর এডুকেশনের সহায়তায়। এগুলো শিক্ষক ও শিক্ষার্থীদের জন্য ডেস্ক, বেঞ্চ ও চেয়ার দিয়ে সাজানো হয়েছে। প্রতিবন্ধী শিশুদের জন্য র‌্যাম্প ও শিশুবান্ধব স্যানিটেশন সুবিধাও রাখা হয়েছে।

বাংলাদেশে ইউনিসেফের প্রতিনিধি শেলডন ইয়েট বলেন, শ্রেণিকক্ষ যখন শিশুবান্ধব ও নিরাপদ হয়, তখন শিশুরা শিখতে পছন্দ করে। তাদের স্কুলে ভর্তি ও উপস্থিতি বাড়ে।

প্রাথমিক শিক্ষা অধিদপ্তরের মহাপরিচালক শাহ রেজওয়ান হায়াত বলেন, স্কুলগুলোতে এখন শিশুরা আরও ভালো পরিবেশ পাবে।