ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কের সীতাকুণ্ডের ভাটিয়ারী এলাকায় পুলিশের ডিউটিতে থাকা অটোরিকশায় ঘুষ দাবির অভিযোগ উঠেছে হাইওয়ে পুলিশের বিরুদ্ধে। শনিবার রাতে এ ঘটনা ঘটে।

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা মিলিটারি একাডেমি ভাটিয়ারীতে রাষ্ট্রপতির কুচকাওয়াজ অনুষ্ঠানে আসাকে কেন্দ্র করে বিভিন্ন স্থানে দায়িত্ব পালন করছিলেন আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর সদস্যরা। ফৌজদারহাট পুলিশ ফাঁড়ির কয়েক সদস্য অটোরিকশা নিয়ে দায়িত্বে ছিলেন।

অটোরিকশাচালক মোহাম্মদ ফারুকের ভাষ্য, শনিবার সকালে ফৌজদারহাট পুলিশের একটি দল অটোরিকশাটি ডিউটির জন্য নেয়। রাত ৯টার দিকে ফৌজদারহাট পুলিশ ফাঁড়ির এএসআই মাসুম ভাটিয়ারী রিভার ভিউ হোটেলের সামনে অটোটি নিয়ে ডিউটি করছিলেন। গাড়িটি রাস্তার পাশে রেখে এএসআই মাসুম অন্য স্থানে যান।

এ সময় বারআউলিয়া হাইওয়ে পুলিশের এএসআই গাজী মোহাম্মদ শওকত আকবর মহাসড়কে অটোরিকশা চলাচল অবৈধ জানিয়ে দুই হাজার টাকা ঘুষ দিতে বলেন চালককে। টাকা না দিলে গাড়িটি হাইওয়ে থানায় নিয়ে যাওয়া হবে বলে হুমকি দেন। এ সময় স্থানীয় লোকজন ঘুষ দাবির বিষয়ে প্রতিবাদ জানান। বিষয়টি ফৌজদারহাট পুলিশ ফাঁড়িকে লিখিতভাবে জানিয়েছেন বলে জানান চালক।

এএসআই মাসুম জানান, হাইওয়ে পুলিশের এএসআই অটোরিকশা চালকের কাছে দুই হাজার টাকা ঘুষ চেয়েছিলেন। এরপর পুলিশের ডিউটি করছে জানতে পেরে টাকা না নিয়ে গাড়িটি ছেড়ে দেন।

অভিযোগ অস্বীকার করেছেন এএসআই গাজী মোহাম্মদ শওকত আকবর। তিনি দাবি করেন, এএসআই মাসুম হাইওয়েতে চলাচল নিষিদ্ধ অটোরিকশা নিয়ে ডিউটি করছিলেন। বিষয়টি জানতে চালককে জিজ্ঞাসাবাদ করা হয়েছিল। ওই এএসআই হাইওয়ে পুলিশের সঙ্গে অসৌজন্যমূলক আচরণ করেছেন।