ঢাকা মঙ্গলবার, ২৭ ফেব্রুয়ারি ২০২৪

দশমিনায় জমির বিরোধে শিশুকে কুপিয়ে হত্যা

দশমিনায় জমির বিরোধে শিশুকে কুপিয়ে হত্যা

মরিয়ম

 দশমিনা (পটুয়াখালী) প্রতিনিধি

প্রকাশ: ০৫ ফেব্রুয়ারি ২০২৪ | ০০:৩৩

পটুয়াখালীর দশমিনা উপজেলায় জমি নিয়ে বিরোধের জেরে মরিয়ম (৮) নামে এক শিশুকে কুপিয়ে হত্যার অভিযোগ উঠেছে। গত শনিবার রাতে উপজেলার বেতাগী সানকিপুর ইউনিয়নের রামবল্লভ এলাকায় পরিত্যক্ত ভিটা থেকে তার লাশ উদ্ধার করে পুলিশ। মরিয়ম ওই এলাকার মকবুল মৃধা ও রিনা বেগম দম্পতির মেয়ে। সে রামবল্লভ অগ্রণী সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের তৃতীয় শ্রেণির ছাত্রী। 

পুলিশ ও স্থানীয় সূত্র জানায়, শনিবার বিকেলে বাড়ির পাশে চাচা আলম মৃধার বাড়িতে খেলতে যায় মরিয়ম। সন্ধ্যার পরও না ফেরায় পরিবারের লোকজন তাকে খোঁজাখুঁজি শুরু করেন। রাত ৮টায় বাড়ির পাশের পরিত্যক্ত ভিটায় মরিয়মকে রক্তাক্ত অবস্থায় পড়ে থাকতে দেখেন তার বাবা। এ সময় শিশুটির মাথা দিয়ে রক্ত বের হচ্ছিল এবং গলায় ওড়না পেঁচানো ছিল। খবর পেয়ে পুলিশ রাত ১২টার দিকে লাশ উদ্ধার করে। 
মরিয়মের বাবা মকবুল মৃধা বলেন, ‘দীর্ঘদিন ধরে প্রতিবেশী রাজ্জাক মৃধা, বারেক মৃধা, হারুন মৃধা, শাজাহান মৃধা ও জাকির হোসেনের সঙ্গে জমিজমা নিয়ে আমাদের বিরোধ চলছে। এর জেরে তারা আমার মেয়েকে হত্যা করেছে। আমি এর বিচার চাই।’

রিনা বেগম বলেন, ‘শনিবার সন্ধ্যায় প্রতিপক্ষের কয়েকজনকে আমাদের বাড়ির আশপাশে সন্দেহজনকভাবে ঘোরাঘুরি করতে দেখেছি। তারাই আমার মেয়েকে হত্যা করেছে।’
বেতাগী সানকিপুর ইউনিয়নের চেয়ারম্যান মশিউর রহমান ঝন্টু জানান, শিশু হত্যাকারীদের কঠোর শাস্তি দাবি করছি। ঘটনার পর থেকে রাজ্জাক, বারেক, হারুন, শাজাহান, জাকিরসহ কয়েকজন পলাতক। 
দশমিনা থানার ওসি নুরুল ইসলাম মজুমদার জানান, লাশ উদ্ধারের সময় শিশুটির মাথায় আঘাত ও গলায় ফাঁস দেওয়া দেখা গেছে। ময়নাতদন্তের জন্য লাশ পটুয়াখালী জেনারেল হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হয়েছে। এ ঘটনায় মামলা প্রক্রিয়াধীন।

 

আরও পড়ুন

×