ঢাকা বুধবার, ২৮ ফেব্রুয়ারি ২০২৪

চেয়ারম্যানের বাড়িতে হামলা গাড়ি মোটরসাইকেল ভাঙচুর

চেয়ারম্যানের বাড়িতে হামলা গাড়ি মোটরসাইকেল ভাঙচুর

গাজীপুরের কালীগঞ্জ উপজেলার নাগরী ইউপি চেয়ারম্যানের বাড়ির সামনে ভাঙচুর করা কয়েকটি প্রাইভেটকার। মঙ্গলবার তোলা ছবি সমকাল

 কালীগঞ্জ (গাজীপুর) প্রতিনিধি

প্রকাশ: ১৪ ফেব্রুয়ারি ২০২৪ | ০০:৩৩

গাজীপুরের কালীগঞ্জ উপজেলার নাগরী ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যানের বাড়িতে একদল সন্ত্রাসী হামলা চালিয়ে বাড়ির গেট, ১৮টি মোটরসাইকেল ও ছয়টি প্রাইভেটকার ভাঙচুর করেছে। এ ঘটনায় তিনজনকে গ্রেপ্তার করেছে কালীগঞ্জ থানা পুলিশ।
গত সোমবার রাত সাড়ে ৮টার দিকে নাগরীর বড়কাউ এলাকায় এ হামলার ঘটনা ঘটে। গতকাল মঙ্গলবার দুপুরে ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করেন কালীগঞ্জ থানার ওসি মাহাতাব উদ্দিন।
ঘটনার সঙ্গে জড়িত হায়দার হোসেন, মনজুর হোসেন ও বাকির হোসেনকে সোমবার রাতে আটক করে মঙ্গলবার জেলহাজতে পাঠানো হয়েছে। এ ঘটনায় চেয়ারম্যান অলিউল ইসলাম অলির ছোট ভাই আলিউল ইসলাম বাদী হয়ে ৪৬ জনের নামে ও আরও ৫০ জনকে অজ্ঞাতপরিচয় আসামি করে থানায় মামলা করেছেন।
মামলার বিবরণ ও এলাকাবাসী সূত্রে জানা যায়, সোমবার রাতে সন্ত্রাসীরা চেয়ারম্যান অলিকে হত্যার উদ্দেশ্যে তাঁর বাড়িতে হামলা চালায়। এ সময় তিনি বাড়ির ভেতরে অবস্থান করছিলেন। চেয়ারম্যান শারীরিকভাবে অসুস্থ ছিলেন। তাঁর বাড়িতে আত্মীয়স্বজন, শুভাকাঙ্ক্ষী ও দলীয় নেতাকর্মী তাঁকে দেখতে আসেন। তাদের মোটরসাইকেল ও প্রাইভেটকার বাড়ির সামনে রাখা ছিল। এ সময় হামলাকারীরা বাড়ির গেট, ১৮টি মোটরসাইকেল ও ছয়টি প্রাইভেটকার ভাঙচুর করা হয়। হামলাকারীরা বাড়ির প্রধান ফটক ভাঙচুর করে বাড়ির ভেতরে ঢোকার চেষ্টা চালায়।
এর আগে সন্ধ্যা ৭টার দিকে চেয়ারম্যানের বাড়ির পাশে রাস্তায় তাঁর ছোট ভাই আলিউলের প্রাইভেটকারের গতিরোধ করে সন্ত্রাসীরা হামলা চালিয়ে তাঁকে গুরুতর আহত করে। তিনি প্রাণ বাঁচাতে পাশের বাড়িতে আশ্রয় নেন।
ভুক্তভোগী নাগরী ইউপি চেয়ারম্যান ও ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক অলিউল ইসলাম অলি বলেন, তিনি নৌকা প্রতীকে দু’বার চেয়ারম্যান নির্বাচিত হয়েছেন। এবার জাতীয় সংসদ নির্বাচনে তিনি নৌকা প্রতীকের পক্ষে নির্বাচন করলে স্বতন্ত্র প্রার্থীর পক্ষের লোকজন তাঁর ওপর ক্ষিপ্ত হয়। এরই ধারাবাহিকতায় তাঁকে হত্যার উদ্দেশ্যে তাঁর বাড়িতে হামলা চালায়। কিছুদিন আগে তাঁর হার্টে রিং পরানো হয়। তাই তিনি শারীরিকভাবে খুবই অসুস্থ। তাঁকে দেখতে আত্মীয়স্বজন, শুভাকাঙ্ক্ষী ও দলীয় নেতাকর্মী আসেন। তাদের ব্যবহৃত মোটরসাইকেল ও প্রাইভেটকার হামলাকারীরা ভাঙচুর করে।
কালীগঞ্জ থানার ওসি বলেন, পুলিশ যাওয়ার খবর পেয়ে হামলাকারীরা সেখান থেকে সরে পড়ে। পরে বড়কাউ এলাকা থেকে এজাহারভুক্ত তিনজনকে পুলিশ আটক করে। 

আরও পড়ুন

×