ঢাকা শনিবার, ১৮ মে ২০২৪

টেকনাফ সীমান্তে রাতভর গোলাগুলির বিকট শব্দ

টেকনাফ সীমান্তে রাতভর গোলাগুলির বিকট শব্দ

সীমান্তে সতর্ক অবস্থানে রয়েছে বিজিবি। ফাইল ছবি

টেকনাফ (কক্সবাজার) প্রতিনিধি

প্রকাশ: ০১ মার্চ ২০২৪ | ১৮:১০

কক্সবাজারের টেকনাফ সীমান্তের ওপারে মিয়ানমার থেকে আবারও গোলাগুলি ও বিস্ফোরণের বিকট শব্দ শোনা গেছে। এতে আতঙ্কে রয়েছেন সীমান্তে বসবাসকারী। শুক্রবার মধ্যরাত থেকে বেলা ১১টা পর্যন্ত টেকনাফের হ্নীলা ও হোয়াইক্যং ইউনিয়নের সীমান্তে থেমে থেমে শোনা যায় মর্টারশেল ও গোলাগুলির শব্দ।

জানা যায়, নিজেদের অস্তিত্ব রক্ষায় মিয়ানমারের সরকারি বাহিনীর সঙ্গে আরাকান আর্মির সংঘর্ষ চলছে। হোয়াইক্যং ও হ্নীলা সীমান্তের পূর্বে মিয়ানমারের কুমিরহালি, নাইচদং, কোয়াংচিগং, শিলখালী, নাফপুরা গ্রামগুলোতে চলছে সংঘর্ষ। টেকনাফ উপজেলার হোয়াইক্যং থেকে শাহপরীরদ্বীপ পর্যন্ত ৫৪ কিলোমিটার নাফ নদীতে বিজিবি ও কোস্টগার্ডের সদস্যরা টহল বাড়িয়েছে।

টেকনাফের হ্নীলা ইউনিয়ন পরিষদের (ইপি) চেয়ারম্যান রাশেদ মোহাম্মদ আলী, শুক্রবার মধ্যরাত থেকে সকাল পর্যন্ত সীমান্তের ওপার থেকে মর্টারশেলের শব্দ শুনতে পাই। কয়েকদিন বন্ধ থাকলেও ফের মর্টারশেলের শব্দে সীমান্ত আতঙ্কে দিন কাটাচ্ছেন জেলে ও চাষিরা। তাদের খোঁজ-খবর নেওয়া হচ্ছে। 

হোয়াইক্যং কান্জর পাড়া দেলোয়ার হোসেন বলেন, হোয়াইক্যং উনচিপ্রাং পুলিশ ফাঁড়ির পূর্বে সীমান্তে মিয়ানমার ওপার থেকে শুক্রবার দিবাগত রাত ১২ টা ২০মিনিটের পর থেকে ভয়ংকর শব্দে কেঁপে উঠছে সীমান্ত এলাকা। সেটি থেমে থেমে ভোর ৫টা পর্যন্ত বিকট শব্দ শোনা যায়।

হ্নীলা ফুলের ডেইলের বাসিন্দার তারেক মোহাম্মদ রনি বলেন, শুক্রবার বেলা ১১টার দিকে মিয়ানমারে 
একটি মর্টারশেলে বিস্ফোরণ হয়। জীবনে প্রথম এত ভয়ংকর বিকট শব্দ শুনলাম।

এ বিষয়ে কোস্ট গার্ড চট্টগ্রাম পূর্বজোনের মিডিয়া কর্মকর্তা লেফটেন্যান্ট তাহসিন রহমান বলেন, মিয়ানমারে চলমান যুদ্ধের কারণে সীমান্তের নাফনদে আমাদের টহল চলমান রয়েছে। নতুন করে বাংলাদেশে কোনো অনুপ্রবেশকারীকে ঢুকতে দেওয়া হবে না। এছাড়া মিয়ানমার থেকে অনুপ্রবেশকালে  আমরা ২ শতাধিকের বেশি অনুপ্রবেশকারী রোহিঙ্গাকে প্রতিহত করেছি।
 

আরও পড়ুন

×