ঢাকা শুক্রবার, ২৪ মে ২০২৪

দ্বিতীয় দফা সময়ও শেষ তিন সভাপতিকে নোটিশ

ফসল রক্ষা বাঁধের কাজ

দ্বিতীয় দফা সময়ও শেষ তিন সভাপতিকে নোটিশ

জগন্নাথপুরের নলুয়া হাওরের ১১ নম্বর প্রকল্পে এলোমেলোভাবে ফেলা রাখা হয়েছে মাটি। ছবি: সমকাল

 জগন্নাথপুর (সুনামগঞ্জ) প্রতিনিধি

প্রকাশ: ০৭ মার্চ ২০২৪ | ০৪:৪৭ | আপডেট: ০৭ মার্চ ২০২৪ | ০৪:৪৭

জগন্নাথপুরে হাওরের ফসল রক্ষা বাঁধ নির্মাণ ও সংস্কারকাজ দ্বিতীয় দফার বর্ধিত সময় শেষ হয়ে গেছে। বুধবার দ্বিতীয় দফার নির্ধারিত সময় শেষ হয়ে গেলেও শেষ হয়নি বাঁধের কাজ। এদিকে সময়মতো বাঁধের কাজ শেষ করতে না পারায় ৮, ১১ ও ১৪ নম্বর তিনটি প্রকল্প বাস্তবায়ন কমিটির (পিআইসি) সভাপতিদের কারণ দর্শাতে বলা হয়েছে।

হাওরের কয়েকটি এলাকা ঘুরে দেখা যায়, কয়েকটি প্রকল্পে এখনও মাটি ফেলার কাজ বাকি রয়েছে। আবার কিছু কিছু প্রকল্পে চলছে শেষ মুহূর্তের কাজ। সেখানে ঘাস লাগানো ও ড্রেসিং করা হচ্ছে।

নলুয়ার হাওরে দেখা গেছে, ৮, ১১ ও ১৪ নম্বর প্রকল্পের অনেক স্থানে এখনও মাটি পড়েনি। ৯ ও ১০ নম্বর প্রকল্পে মাটি কাটার কাজ শেষ হলেও ড্রেসিংসহ শেষ মুহূর্তের কাজ বাকি আছে।

৮ নম্বর প্রকল্পের সভাপতি সুজাত মিয়া জানান, মাটি কাটার যন্ত্র নষ্ট হওয়ায় ও বৃষ্টির কারণে কিছুদিন কাজ দেরি হয়েছে। বর্তমানে জোরেশোরে কাজ চলছে। দু-এক দিনের মধ্যে শেষ হবে। ১১ নম্বর প্রকল্পের সভাপতি মফিজ আলী জানান, তার প্রকল্প এলাকায় মাটির কাজ শেষের পথে। এখন শুধু ড্রেসিং ও ঘাস লাগানোর কাজ চলবে।

১৪ নম্বর প্রকল্পে এখনও অনেক জায়গায় মাটি পড়েনি। প্রকল্পের সদস্য চিলাউড়া হলদিপুর ইউনিয়ন পরিষদের সাবেক সদস্য জানান, প্রকল্পের কাজ দ্রুত শেষ করতে কাজ চালিয়ে যাচ্ছেন সংশ্লিষ্টরা। ঝুঁকিপূর্ণ অংশে মাটির কাজ শেষ। 

হাওর বাঁচাও আন্দোলন, জগন্নাথপুর উপজেলা কমিটির আহ্বায়ক সিরাজুল ইসলাম জানান, ২৮ ফেব্রুয়ারির মধ্যে ফসল রক্ষা বেড়িবাঁধের কাজ শেষ করার নিয়ম থাকলেও কাজ শেষ না হওয়ায় দ্বিতীয় দফায় ৬ মার্চ পর্যন্ত সময় বাড়ানো হয়। বর্ধিত সময়েও কাজ শেষ না হওয়া দুঃখজনক। হাওরে এখনও ২০ প্রকল্পের কাজ অসমাপ্ত। তাই আগাম বন্যার ঝুঁকি রয়েছে। এ নিয়ে চিন্তিত কৃষকরা।

পানি উন্নয়ন বোর্ডের উপসহকারী প্রকৌশলী সবুজ কুমার শীল জানান, সময়মতো কাজ শেষ না করায় ৮, ১১ ও ১৪ নম্বর প্রকল্প কমিটির সভাপতিকে কারণ দর্শাতে বলা হয়েছে। বুধবার ছিল নোটিশের জবাব দেওয়ার শেষ দিন।

জগন্নাথপুরের ইউএনও আল বশিরুল ইসলাম জানান, নলুয়া হাওরের ১ থেকে ১৪ নম্বর প্রকল্পের কাজ পরিদর্শন করেছেন। এর মধ্যে ৮, ১১ ও ১৪ নম্বর প্রকল্পের কাজ এখনও শেষ হয়নি। তবে শুক্রবারের মধ্যে হয়তো শেষ হয়ে যাবে। 

আরও পড়ুন

×