বগুড়া-৬ সদর আসনের উপনির্বাচনে স্বতন্ত্র সংসদ সদস্য প্রার্থী সরকার বাদল বলেছেন, বগুড়ায় সবচেয়ে বড় সমস্যা মাদক ও সন্ত্রাস। মাদকের কারণে অপরাধ বেড়ে চলেছে। বাড়ছে সন্ত্রাসী কর্মকাণ্ড। যুবসমাজ মাদকাসক্ত হয়ে শেষ হয়ে যাচ্ছে। তাই আমি নির্বাচিত হলে প্রধান কাজ হবে মাদক নির্মূলে উদ্যোগ নেওয়া।

আজ বুধবার বগুড়া শহরের স্টেশন রোডে গণসংযোগের সময় এসব কথা বলেন তিনি।

বিএনপির সাবেক এ নেতা বলেন, বগুড়া শহরকে একটি পরিকল্পিত আধুনিক শহর করতে এর আগে কেউ প্রদক্ষেপ নেয়নি। নির্বাচিত হলে পরিকল্পিত নগরায়ণ করব। বগুড়ায় অর্থনৈতিক জোন, বিমানবন্দর, চার লেন সড়ক, বিশ্ববিদ্যালয় নির্মাণের দাবি উপজেলা চেয়ারম্যান থাকাকালে সরকারকে জানিয়েছিলাম। এমপি হলে এগুলো নিয়ে জাতীয় সংসদে কথা বলব।

উন্নয়নে বাংলাদেশ, উন্নয়নে বগুড়া তাঁর নির্বাচনী স্লোগান জানিয়ে সবার কাছে কুড়াল প্রতীকে ভোট চান বাদল।

এ ছাড়া নির্বাচন উপলক্ষে বগুড়া প্রেস ক্লাবে সংবাদ সম্মেলন করেন বাদল। এ সময় বিএনপির সঙ্গে সংশ্লিষ্টতার বিষয়ে কথা বলেন তিনি।

বাদল বলেন, আমি বিএনপির সদর উপজেলায় এক সময় নেতৃত্ব দিয়েছি। নানা কারণে এখন দলের সঙ্গে সম্পৃক্ত না থাকলেও বিএনপি আমার অন্তরে মিশে আছে। এ সময় তাঁর সঙ্গে ছিলেন সালেহীন সাজ্জাদ, মনিরুজ্জামান, সরকার মুক্তা, হেলাল উদ্দিন প্রমুখ।

বৃহত্তর বগুড়া সদর উপজেলা বিএনপির সভাপতি ছিলেন। দীর্ঘদিন থেকে দলের সঙ্গে তাঁর সম্পৃক্ততা নেই। বর্তমানে দলের কোনো পদপদবিতেও নেই।