নিখোঁজের পরদিন ঢাকার ধামরাইয়ে পাওয়া গেছে আসলাম হোসেন লিটন (৩০) নামের এক যুবকের মরদেহ। শুক্রবার সকাল সাড়ে ১০টার দিকে উপজেলার কুশুরা ইউনিয়নের রাধানগর গ্রামের একটি ভুট্টাক্ষেত থেকে তাঁর মরদেহ উদ্ধার করে পুলিশ। বিকেলে স্বজনরা থানায় গিয়ে মরদেহ শনাক্ত করেন।

সংশ্লিষ্ট সূত্র জানায়, আসলাম হোসেন লিটন ধামরাইয়ের গাংগুটিয়া ইউনিয়নের কাওয়ালিপাড়া গ্রামের বাদশা মিয়ার ছেলে। পেশায় রঙমিস্ত্রি লিটন বৃহস্পতিবার বিকেলে বাড়ি থেকে বের হন। রাতে আর ফেরেননি।

পুলিশ জানিয়েছে, শুক্রবার সকালে রাধানগরের লোকজন ওই যুবকের লাশ দেখতে পেয়ে থানায় সংবাদ দেয়। পরে তারা অজ্ঞাতপরিচয় লাশ হিসেবে থানায় নিয়ে আসে। বিকেলে স্বজনরা মরদেহটি লিটনের হিসেবে শনাক্ত করেন।

ধামরাইয়ের কাওয়ালিপাড়া পুলিশ তদন্ত কেন্দ্রের উপপরিদর্শক (এসআই) আল আমিন হাওলাদার বলেন, নিহত লিটনের নাক-মুখ রক্তাক্ত ছিল। প্রাথমিকভাবে ধারণা করা হচ্ছে, দুর্বৃত্তরা শ্বাসরোধে হত্যার পর ওই ভুট্টাক্ষেতে ফেলে পালায়। তবে ময়নাতদন্তের প্রতিবেদন না পেলে বিষয়টি নিশ্চিত হওয়া যাবে না।