ময়মনসিংহের ঈশ্বরগঞ্জে শরীরে ব্যাটারিচালিত অটোরিকশার ‌ঘষা লাগায় স্থানীয় ইউপি সদস্যের ছেলের বিরুদ্ধে থাপ্পড় দিয়ে চালককে হত্যার অভিযোগ উঠেছে। আজ রোববার সকালে এ ঘটনা ঘটে।

নিহত সোহেল মিয়া (১৯) উপজেলার গুইলাকান্দা গ্রামের আবু সাঈদের ছেলে। পরে তার মরদেহ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজের মর্গে পাঠিয়েছে পুলিশ। ঘটনার পর থেকে পলাতক থাকায় অভিযুক্তকে আটক করতে পারেনি পুলিশ।

স্থানীয়রা জানান, রোববার সকাল সাড়ে ১০টার দিকে সরিষা ইউনিয়ন পরিষদ এলাকায় সোহেলের ইজিবাইকের সঙ্গে স্থানীয় ৮ নম্বর ওয়ার্ডের সদস্য আবুল হাসেমের ছেলে ময়নাল মিয়ার শরীরে ঘষা লাগে। ওই সময় সড়কে হাঁটতে হাঁটতে মোবাইল ফোনে কথা বলছিল ময়নাল। পরে সোহেলকে থামিয়ে চড় মারতে শুরু করে সে। একপর্যায়ে সোহেল মাটিতে লুটিয়ে পড়লে তাকে ঈশ্বরগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে যাওয়া হয়। সেখানে চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন।

নিহত সোহেলের বাবা আবু সাঈদ বলেন, সামান্য বিষয় নিয়ে আমার ছেলেকে ওরা মেরে ফেলল। আমি এ হত্যার কঠোর বিচার দাবি করছি।

এ বিষয়ে অভিযুক্ত ময়নালের বাবা ইউপি সদস্য আবুল হাসেমের মোবাইল ফোন নম্বরে চেষ্টা করেও তার বক্তব্য নেওয়া সম্ভব হয়নি।

সরিষা ইউপির চেয়ারম্যান একরাম হোসেন বলেন, ইজিবাইকের ঘষা লাগা নিয়ে থাপ্পড় দিলে সোহেলের মৃত্যু হয়। বিষয়টি খুবই দুঃখজনক। 

আঠারবাড়ি পুলিশ তদন্ত কেন্দ্রের পরিদর্শক জাহাঙ্গীর আলম বলেন, অভিযুক্তকে আটকের চেষ্টা চলছে। এ ছাড়া থানায় মামলা দায়েরের প্রস্তুতি চলছে।